৫ বছরের কম বয়সী শিশুদের মাস্কের প্রয়োজন নেই: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া মহামারি করোনাভাইরাসে প্রতিদিনই আক্রান্ত হচ্ছেন অসংখ্য মানুষ। মৃত্যুর মিছিলে যোগ হচ্ছে নতুন নতুন প্রাণ। করোনা ভাইরাস থেকে বাঁচতে মানুষ মাস্ক বা নানা ধরনের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলছেন।

তবে এর মধ্যেও পাঁচ বছর বা তার কম বয়সী শিশুদের কোনো ধরনের মাস্ক পরার প্রয়োজন নেই বলে জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) ও ইউনিসেফ। করোনাভাইরাসে পাঁচ বছরের কম বয়সী শিশুদের আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেশ কম থাকায় এ পরামর্শ দিয়েছে জাতিসংঘের সংস্থা দু’টি।

সোমবার (২৪ আগস্ট) এক যৌথ বিবৃতিতে ডব্লিইএইচও এবং ইউনিসেফ থেকে বলা হয়, ‘বড়দের তুলনায় কম বয়সী শিশুদের করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা খুবই কম। তবে বয়স ভেদে এটি পরিবর্তিত হতে পারে।’

বিবৃতিতে আরো বলা হয়, করোনায় আক্রান্ত ও তা ছড়ানোর সম্ভাবনা কম হওয়ায় পাঁচ বছর বা তার কম বয়সী শিশুদের সাধারণ ক্ষেত্রে মাস্ক পরার দরকার নেই। ৬ থেকে ১১ বছর বয়সীদেরও আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি খুব বেশি না থাকায় সেটি বাধ্যতামূলক নয়। তবে ১২ বছর বা তার বেশি বয়সীদের ক্ষেত্রে বড়দের মতোই মাস্ক পরিধান করতে হবে এবং অন্যান্য নিয়ম কানুন মেনে চলতে হবে।

সম্প্রতি এক গবেষণায় দেখা গেছে যে, ১৩ থেকে ১৯ বছর বয়সী কিশোর ও তরুণরা করোনাভাইরাস ছড়ানোর ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা রাখছে। তাদের অসাবধানতায় করোনার সংক্রমণ আরো বেড়ে যেতে পারে বলে বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করছেন।

 

সূত্র: সিএনএন।