হামাসের সঙ্গে যুদ্ধবিরতির সন্ধানে ইসরাইল

ইহুদিবাদী ইসরাইলের সাউদার্ন কমান্ডের কমান্ডার মেজর জেনারেল হারজি হালেভি কাতার সফর করেছেন। ফিলিস্তিনের অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকাভিত্তিক ইসলামি প্রতিরোধ আন্দোলন হামাসের সঙ্গে যখন ইজরাইলের প্রচণ্ড সামরিক উত্তেজনা চলছে তখন এ সফর অনুষ্ঠিত হলো।

লন্ডনভিত্তি পত্রিকায় জানিয়েছে, যুদ্ধবিরতি অথবা চুক্তির ব্যাপারে আলোচনার জন্য জেনারেল হালেভি আজ (সোমবার) কাতারে উড়ে যান।

সফরে হালেভির সঙ্গে বেশ কয়েকজন সামরিক কর্মকর্তা, ইসরাইলের অভ্যন্তরীণ গোয়েন্দা সংস্থা শিনবেথ ও মোসাদের কর্মকর্তারা ছিলেন। ইসমাইল হানিয়া এবং সালেহ আল-আরুরিসহ হামাসের কয়েকজন শীর্ষ নেতা কাতারে বসবাস করেন।

তেল আবিবের গোয়েন্দা সূত্রের বরাত দিয়ে পত্রিকা জানিয়েছে, ইসরাইলি প্রতিনিধিদল হামাস নেতা ইসমাইল হানিয়া এবং সালেহ আল-আরুরির সঙ্গে চুক্তি অথবা যুদ্ধবিরতির বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে দোহা যান।

পত্রিকার খবরে বলা হয়েছে- যদিও যুদ্ধবিরতির ব্যাপারে মিশর চেষ্টা চালাচ্ছে তবে ইসরাইল চায়- মধ্যস্থতার ব্যাপারে দোহা বৃহত্তর ভূমিকা পালন করুক।

পত্রিকার খবর অনুযায়ী, হামাস নেতাদেরকে হত্যার ব্যাপারে তেল আবিব যে হুমকি দিয়েছে তাকে গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে হামাস। ফিলিস্তিনের এ প্রতিরোধ আন্দোলন গত শুক্রবার ইসরাইলকে হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেছে, যেকোন আগ্রাসনের জন্য তেল আবিবকে চড়া মূল্য দিতে হবে।

গত কিছুদিন ধরে ইহুদিবাদী ইসরাইল প্রায় নিয়মিতভাবে গাজার ওপর হামলা চালিয়ে আসছে। অবরুদ্ধ গাজা উপত্যকাকে সহযোগিতার ব্যাপারে কাতার হচ্ছে অন্যতম প্রধান অর্থদাতা দেশ।