হংকংয়ের সঙ্গে প্রত্যর্পণ চুক্তি বাতিল করলো যুক্তরাষ্ট্র

সাবেক ব্রিটিশ কলোনি হংকংয়ে বেইজিং জাতীয় নিরাপত্তা আইন কার্যকর করার পর এর প্রতিক্রিয়ায় সবশেষ পদক্ষেপ হিসেবে চীনের আধা-স্বায়ত্তশাসিত অঞ্চলটির সঙ্গে অপরাধী প্রত্যর্পণ চুক্তি বাতিল করলো যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার ওয়াশিংটন হংকংয়ের সঙ্গে যে তিনটি দ্বি-পাক্ষিক চুক্তি বাতিল করেছে এর মধ্যে এটি অন্যতম।

প্রতিবেদন অনুযায়ী মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় চুক্তিগুলো বাতিলের ঘোষণা দিয়ে বলেছে, চীন প্রণীত জাতীয় নিরাপত্তা আইন হংকংয়ের মানুষের স্বাধীনতাকে চূর্ণ করেছে। গত মাসে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হংকংয়ের কূটনৈতিক মর্যাদা ও বিশেষ বাণিজ্য সুবিধা বাতিলের ঘোষণা দেন।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এক টুইট বার্তায় লিখেছেন, চীনা কমিউনিস্ট পার্টি (চীনের ক্ষমতাসীন দল) হংকংয়ের মানুষের স্বাধীনতা ও স্বায়ত্তশাসন চূর্ণ করার পথ বেছে নিয়েছে। চীনা কমিউনিস্ট পার্টির এমন পদক্ষেপের কারণে হংকংয়ের সঙ্গে তিনটি চুক্তি বাতিল অথবা স্থগিত করছে।

যুক্তরাষ্ট্রের সবশেষ এই পদক্ষেপ নিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে চীন এখনও কোনো মন্তব্য কিংবা প্রতিক্রিয়া জানায়নি।  প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, চীন প্রণীত নতুন নিরাপত্তা আইনের কারণে শাস্তিমূলক প্রতিক্রিয়া হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র আরও নানা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারে বলেই ধারণা করা হচ্ছে।

সম্পতি যুক্তরাজ্য, জার্মানি এবং অস্ট্রেলিয়ার মতো দেশগুলোও হংকংয়ের সঙ্গে থাকা প্রত্যর্পণ চুক্তি বাতিল করেছে। এ মাসের শুরুতে ট্রাম্প প্রশাসন হংকংয়ের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাসহ হংকং এবং চীনের মূল ভূখণ্ডের ১১ জন ঊর্ধ্বতন সরকারি কর্মকর্তার ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে।

সদ্যপ্রণীত জাতীয় নিরাপত্তা আইনে গত সপ্তাহে আটক হংকংয়ের মিডিয়া মোগল জিমি লাইয়ের প্রশংসা করে গতকাল বুধবার নানা মন্তব্য করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। চীনবিরোধী মন্তব্য করে ৭১ বছর বয়সী জিমি লাইকে হংকংয়ের গণতন্ত্রপন্থী আন্দোলনের একজন সাহসী ব্যক্তি হিসেবে অভিহিত করেন তিনি।