সেই নাজিম উদ্দিনের হাতে ঘর ও দোকানের চাবি হস্তান্তর

শেরপুর ঝিনাইগাতি উপজেলার ভিক্ষুক নাজিম উদ্দিনের হাতে ঘর ও দোকানের চাবি হস্তান্তর করেছেন জেলা প্রশাসক আনারকলি মাহবুব। ভিক্ষাবৃত্তি থেকে উপার্জিত সব অর্থ করোনা তহবিলে দিয়েছিলেন নাজিম। বিষয়টি নজরে আসার পর নাজিম উদ্দিনের পুর্নবাসনের জন্য শেরপুরের জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

এরইমধ্যে ১৫ শতাংশ জমি নাজিমদ্দিনের নামে বরাদ্দ দিয়েছে সরকার। তাকে যেন আর কখনো ভিক্ষা করতে না হয় সেজন্য একটি দোকান ও দোকানের মালামাল দিয়েছেন জেলা প্রশাসক। নাজিম উদ্দিনের চিকিৎসার দায়িত্বও নিয়েছে সরকার। ইতোমধ্যে নাজিম উদ্দিনের অসুস্থ মেয়ের চিকিৎসাও করা হয়েছে।

নাজিম উদ্দিন ফকির প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনা করে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন। তিনি বলেন, এইডা (এইটা) আমার মতো একজন ভিক্ষুকের জন্য বেহেশখানা।
দোকান ও ঘর হস্তান্তরের সময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান এসএমএ ওয়ারেজ নাইম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রুবেল মাহমুদ, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জয়নাল আবেদীন, থানার ওসি আবু বকর সিদ্দিক প্রমুখ।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রুবেল মাহমুদ বলেছেন, এমন একটি মহৎ কাজের সাথে জড়িত থাকতে পেরে নিজেকে ধন্য মনে করছি।

জেলা প্রশাসক (ডিসি) আনার কলি মাহবুব বলেন, আমরা সবাই আন্দিত। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে মহানুভব ব্যক্তি নাজিম উদ্দিনের হাতে পাকা বাড়ি ও দোকানের চাবি তুলে দিতে পেরে প্রশান্তি পেয়েছি।