সুঝাউতে হোটেল ধস: নিহত বেড়ে ১৭

চীনের পূর্বাঞ্চলের শহর সুঝাউতে একটি হোটেল ভবন ধসের ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৭ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। প্রায় ৩৬ ঘণ্টার উদ্ধার অভিযানে তাদের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়।

ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, সোমবার (১২ জুলাই) চীনের পূর্বাঞ্চলের শহর সুঝাউতে স্থানীয় সময় বিকেলে সিজি কাইউয়ান নামে হোটেলটি ধসে পড়ে। প্রায় ৩৬ ঘণ্টার উদ্ধার অভিযানে ধ্বংসস্তূপের নিচ থেকে চাপা পড়া ২৩ জনকে বের করা হয়। তাদের মধ্যে ৬ জনকে জীবিত ও বাকি ১৭ জনকে মৃত অবস্থায় বের করে আনে উদ্ধারকারীরা। এখনো নিখোঁজদের সন্ধানে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন উদ্ধারকর্মীরা।

গ্লোবাল টাইমসের প্রতিবেদন বলছে, প্রাথমিক তদন্তে জানা গেছে, একাধিক মালিকের মধ্যে একজন ওই ভবনের কাঠামোয় কিছুটা পরিবর্তন করেছেন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে ভবনটিতে বেশ কয়েকবার সংস্কার কাজ করা হয়েছে। সে কারণেই ভবনটি ধসে পড়েছে।

স্থানীয় একজন বাসিন্দা জানিয়েছেন, ৩০ বছরের পুরানো ভবনটির একাধিক মালিক রয়েছেন। তিনতলা এ ভবনটিকে সম্প্রতি আরও কয়েক তলা বাড়ানো হয়েছিল।

জানা যায়, ঘটনার পর উদ্ধারকারী দল দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে ধ্বংসস্তূপ থেকে ৬ জনকে জীবিত উদ্ধার করতে সক্ষম হয়। উদ্ধারের জন্য সেখানে ৬০০ কর্মীকে পাঠানো হয়েছে। এদিকে জিয়াংসু প্রাদেশিক সরকার বলেছে, তদন্তকারী দল দুর্ঘটনার বিষয়ে তদন্ত করছে। অভিযুক্তরা ফৌজদারি অভিযোগের মুখোমুখি হবেন।

চীনে ভবন ধসের ঘটনা নতুন নয়। গত মার্চে দক্ষিণ চীনে হোটেল ভেঙে ২৯ জন মারা গেছিলেন। সেই হোটেলের তিনটি তলা বেআইনিভাবে যোগ করা হয়েছিল। এছাড়া গত মাসে হুনানে মার্শাল আর্ট সেন্টারে আগুন লেগে ১৮ জন মারা যান।