সিনহা হাঁটু গেড়েই বসেছিলেন, কোনো অ’স্ত্র ছিল না: র‌্যা’­ব

অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহার গাড়ি যখন শামলাপুর চেকপোস্টে থামানো হয়, তখন গাড়ি থেকে নেমে হাত তুলে, হাঁটু গেড়ে বসেন তিনি। হাতে ছিল না কোনো অ’স্ত্র।

ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী র‌্যা’­ব মহাপরিচালককে এমন তথ্যই জানিয়েছেন নতুন ত’দন্ত কর্মক’র্তা। শিগগিরই ত’দন্ত শেষ হবে জানিয়ে র‌্যা’­ব ডিজি বলেন, পু’লিশের বি’রুদ্ধে মা’মলা ত’দন্তে বিব্রত নন তারা।

এসআই লিয়াকত গু’লি করার সময় অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহার হাতের অবস্থান র‌্যা’­ব মহাপরিচালককে দেখান মা’মলার ত’দন্ত কর্মক’র্তা সিনিয়র এএসপি খাইরুল ইস’লাম। এছাড়া টেকনাফের শামলাপুর চেকপোস্টে যে ড্রাম ব্যবহার করে গাড়ির গতিরোধ করা হয় এবং গু’লিবিদ্ধ হওয়ার পর সিনহার দেহ কোথায় পড়েছিল তাও দেখানো হয়।

র‌্যা’­বের অ’তিরিক্ত মহাপরিচালক অ’পারেশন্স, ডিজিকে জানান শামলাপুর চেকপোস্টে আসার আগে সিনহার গাড়ি বিজিবির চেকপোস্টে থেমেছিল। সেখানকার সিসিটিভি ফুটেজ পরিচালনা করে তাদের মনে হয়নি যে গাড়িটি কেউ তাড়া করছে।

পরিদর্শন শেষে র‌্যা’­ব মহাপরিচালক বলেন, ত’দন্ত ইতিবাচকভাবে এগোচ্ছে। পু’লিশ কর্মক’র্তাদের বি’রুদ্ধে দায়ের হ’ত্যা মা’মলা ত’দন্ত করতে তারা বিব্রত নন।

র‌্যা’­ব মহাপরিচালক আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, এটা আম’রা খুঁটিয়ে দেখছি। যে সকল তথ্য পাচ্ছি প্রতিটি তথ্য নিয়ে ত’দন্ত করছি। সব কিছুই জানতে পারবেন। মা’মলার ত’দন্ত তদারকিতে সকালে হেলিকপ্টারে উড়ে আসেন র‌্যা’­ব প্রধান।