‘সিনহা হত্যাকাণ্ডে জড়িত নই, সব ষড়যন্ত্র’

সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা হত্যাকাণ্ডে জড়িত ছিলেন না। সিনহার সাথে পরিচয় এবং ওসি প্রদীপের সাথে তার কোন ঘনিষ্টতাও ছিল না। এমনটাই দাবি চলচ্চিত্র অভিনেতা ইলিয়াছ কোবরার। সোমবার (১০ আগস্ট) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে কক্সবাজার প্রেসক্লাবে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ দাবি করেন।

এসময় তিনি টেকনাফের নোয়াখালিয়া পাড়ায় তার কোন বাগানবাড়ি নেই বলেও দাবি করেন এবং মানহানী ও অপপ্রচারের অভিযোগে তিনি একটি জাতীয় পত্রিকা ও প্রতিবেদকের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান।

এসময় ইলিয়াছ কোবরা আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, তার এলাকার একটি মসজিদ সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে কিছু মানুষ তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করতে পারে।

প্রসঙ্গত, গত ৩১ জুলাই ইলিয়াছ কোবরা তার বাগানবাড়ি ঘুরিয়ে দেখানোর জন্য সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ খানকে টেকনাফের নোয়াখালিয়া পাড়ায় রেখে দিয়েছিলেন বলে গণমাধ্যমে খবর আসে।

মেজর সিনহা মো. রাশেদ ২০১৮ সালে সৈয়দপুর সেনানিবাসে থাকা অবস্থায় স্বেচ্ছায় অবসরে যান। তিনি ‘লেটস গো’ নামে একটি ভ্রমণ বিষয়ক ডকুমেন্টারি বানানোর জন্য গত প্রায় একমাস ধরে কক্সবাজারের হিমছড়ি এলাকায় ছিলেন।

গত ৩১ জুলাই রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভের বাহারছড়া ইউনিয়নের শামলাপুর চেকপোস্টে সিনহা মারা যান।