সালমান খানকে খুনের ষড়যন্ত্র! বেরিয়ে এলো ভয়ঙ্কর কাহিনী

গ্যাংস্টার-ষড়যন্ত্র-আত্মহত্যা-মৃত্যু— বলিউডে আশঙ্কার মেঘ যেন কাটতেই চাইছে না। ভারতের মুম্বাই সংবাদমাধ্যমের খবর, এই করোনাকালেই অভিনেতা সালমান খানকে হত্যার ছক করেছিল দুষ্কৃতীরা। নিয়মিত সালমানের বান্দ্রার বাড়ির উপর ছিল নজরদারি৷

রেইকি করা হয়েছিল সালমানের বাড়ির৷ কখন তিনি বাড়ির বাইরে যান, কোথায় কোথায় তিনি যেতেন, সবই নজরে রাখা হত৷ তবে শেষ পর্যন্ত পুলিশের জালে ধরা পড়েছে দুষ্কৃতীরা। প্রকাশ্যে এসেছে সলমনের হত্যার ছক।

কিন্তু কেন সালমান খানকে হত্যার পরিকল্পনা হয়েছিল?

ফরিদাবাদের ডিসিপি (হেডকোয়ার্টার) রাজেশ দুগ্গল জানান, গ্যাংস্টার লরেন্স বিশনই গত জানুয়ারি থেকে রাহুলকে বিশেষ নজর রাখতে বলেছিল সালমানের উপর এবং সুযোগ বুঝে হত্যার নির্দেশ দিয়েছিল।

গত ১৫ আগস্ট রাহুল সংঘ নামে এক শার্প শ্যুটারকে গ্রেফতার করে ফরিদাবাদ পুলিশের ক্রাইম ব্রাঞ্চ৷ সঙ্গে ধরা পড়ে আরো চার ব্যক্তি। রাহুলের কাছ থেকে উদ্ধার হয় গুলি ভরা পিস্তল। রাহুল ভিওয়ানির বাসিন্দা৷

পুলিশ সূত্রে বলা হয়, লরেন্সই এই রাহুলকে নিয়োগ করে সালমান হত্যায়। আপাতত লরেন্স রয়েছে যোধপুর জেলে। তবে জেলে থাকলেও সেখান থেকেই সালমান খানকে খুনের পরিকল্পনা করে সে।

লরেন্সের সঙ্গে সালমানের পুরনো শত্রুতার খবর শোনা যায়৷ সালমানের বিরুদ্ধে কৃষ্ণসার হরিণ শিকারের অভিযোগ ওঠার পর থেকেই লরেন্সের নজরে রয়েছেন সালমান।