সালমানের কাছে ক্ষমা চাওয়ার প্রশ্নই আসে না

‘রাধে: ইয়োর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই’ ছবির সমালোচনা করায় কমল আর খানের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন সালমান খান। কমল আর খানও ছেড়ে দেওয়ার মানুষ নন। তিনি সালমানের বিরুদ্ধে আইনিভাবেই লড়বেন বালে জানিয়েছেন। বহু বলিউড সেলেব নাকি তাকে ফোন করে সমর্থন জুগিয়েছেন সালমানের বিরুদ্ধে এগিয়ে যাওয়ার পথে। তাই এই লড়াই তিনি চালিয়ে যাবেন!

ভারতীয় গণমাধ্যমকে কেআরকে জানিয়েছেন, তিনি তার কাজটা সততার সঙ্গে করে চলেছেন। তাই তার বিশ্বাস, কোনোরকম অন্যায় তিনি করেননি। সুতরাং ভাইজানের কাছে তার ক্ষমা চাওয়ার কোনো প্রশ্নই আসেনা। সালমানের সঙ্গে এই আইনি বিবাদে তিনি নাকি প্রায় ২০ জন নামি বলি-ব্যক্তিত্বেরও সমর্থন পেয়েছেন বলে দাবি করলেন কামাল।

টুইট করে এই স্বঘোষিত ছবি সমালোচক লিখেছেন, ‘সেইসব বলিউড তারকা আমাকে ফোন করে সমর্থন জানিয়েছেন। বলেছেন, সালমানের বিরুদ্ধে আমি যেভাবে গর্জে উঠেছি, এসব ওরাও বলতে চান; কিন্তু পেরে ওঠেন না। কারণ সালমানের সঙ্গে সরাসরি বিবাদে যেতে তারা প্রস্তুত নন। কে আর সেধে সালমানকে নিজের শত্রু বানাতে চায়! তবে এই সমর্থনের জন্য তাদের সকলকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। যদি এখন সরে দাঁড়ান তাহলে সেইসব মানুষ যারা তাকে সমর্থন জুগিয়ে এসেছেন, তারা অত্যন্ত হতাশ হবেন, যা তিনি কিছুতেই হতে দিতে পারেন না!

সম্প্রতি কমল আর খান নিজের ইউটিউব চ্যানেলে সালমানের ছবি ‘রাধে: ইয়োর মোস্ট ওয়ান্টেড ভাই’ নিয়ে কথা বলেছেন। কিন্তু ছবির প্রসঙ্গ ছাড়াও কোভিড পরিস্থিতিতে সালমানের ভূমিকা নিয়ে তোপ দাগতে ছাড়েননি কমল। এরপর বৃহস্পতিবার (২৭ মে) সমালোচক, প্রযোজক কমল আর খানের বিরুদ্ধে মানহানির মামলা করেছেন বলিউড অভিনেতা সালমান খান। সোমবার (২৪ মে) এ বিষয়ে আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে কমল খানের কাছে।