শিশু ধর্ষণে অভিযুক্ত ‘পালিয়ে যাচ্ছিল’, পায়ে গুলি করল পুলিশ

ভারতের হাপুরে ছয় বছরের শিশুকে ধর্ষণে অভিযুক্তকে গতকাল সকালেই আটক করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। তবে ধরা পড়ার পর পুলিশের বন্দুক ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টার অভিযোগ রয়েছে তার বিরুদ্ধে। ওই সময় পুলিশ তার পায়ে গুলি করেছে।

হাপুরের পুলিশ প্রধান সঞ্জীব সুমন জানান, অভিযুক্ত ‌দলপতকে গ্রেপ্তারের পর ঘটনাস্থলে নিয়ে যাওয়া হয় তদন্তের জন্য। তখন পুলিশের পিস্তল ছিনিয়ে নিয়ে পুলিশের দিকেই তাক করেন। পাল্টা গুলি চালায় পুলিশ। গুলি লাগে তার পায়ে। এখন হাসপাতালে ভর্তি তিনি।

কয়েক দিন আগে শিশুটির অভিভাবক এবং প্রতিবেশিদের অভিযোগ শুনে, অভিযুক্তের তিনটি স্কেচ প্রকাশ করে পুলিশ। এরপর দলপত নামে ওই অভিযুক্তের ছবিও প্রকাশ করা হয়। তাকে ধরে দিতে পারলে বা কোনো তথ্য দিতে পারলে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়।

গত বৃহস্পতিবার নদীর পাশে অভিযুক্ত দলপতের কিছু কাপড় আর একটি সুইসাইড নোট পায় পুলিশ। তাতে লেখা আছে, পুলিশের এনকাউন্টারে মরতে চাই না। তাই আত্মহত্যা করলাম। যদিও শেষ পর্যন্ত জানা যায়, পুলিশকে বোকা বানাতে এসব করেছেন তিনি।

গত কয়েক বছর ধরে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের বিরুদ্ধে বারবার ভুয়া এনকাউন্টারে মানুষ মারা অভিযোগ উঠেছে। গত মাসে গ্যাংস্টার বিকাশ দুবে এবং তার সহযোগীদেরও এনকাউন্টারে মেরেছে পুলিশ। দলপত এবার প্রাণে বেঁচে গেছেন।

সূত্র : এনডিটিভি