ময়মনসিংহে শাশুড়িকে ধর্ষণের পর ভিডিও ধারণ করে জামাই

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় স্ত্রীকে নিজের কব্জায় আনতে ডেকে নিয়ে শাশুড়িকে ধর্ষণ করে ভিডিও ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেয়ার অভিযোগে আইয়ুব আলী (৩৭) নামের অমানুষ মেয়ের জামাইকে ধর্ষণ ও পর্নোগ্রাফির দু’টি মামলায় গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃত আইয়ুব আলী মুক্তাগাছা উপজেলার চাপুরিয়া গ্রামের সিরাজ আলীর ছেলে।

থানা পুলিশ ও ধর্ষিতার পরিবার সূত্রে জানাযায়, মুক্তাগাছা উপজেলার চাপুরিয়া গ্রামের সিরাজ আলীর ছেলে মোটর চালক আইয়ুব আলীর সাথে প্রায় দশ বছর আগে একই উপজেলার নরকোনা গ্রামের শাহজাহান মিয়ার মেয়ে শাহিদার বিয়ে হয়। এর মধ্যে তাদের সংসারে আট বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে।

বছর দেড়েক আগে আইয়ুব আলী তার স্ত্রীকে যৌতুকের জন্য চাপ দেয়ার পর যৌতুক দিতে না পারায় স্ত্রীও সন্তানকে তার শ্বশুর বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়। এর পর কোনো যোগাযোগ রক্ষা না করায় স্ত্রী শাহিদা আক্তার তার স্বামীর বিরুদ্ধে ময়মনসিংহ আদালতে যৌতুক আইনে মামলা দায়ের করেন। এ নিয়ে দু’টি পরিবারের মাঝে কয়েক বছর ধরেই টানাপোড়ন চলছিল।

ময়মনসিংহের কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) ফিরোজ তালুকদার বলেন, ‘মেয়ের জামাই আইয়ুব আলীর বিরুদ্ধে ধর্ষণ ও পর্ণোগ্রাফির দু’টি মামলা হয়েছে।’