শত্রুর যেকোনো হামলার দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে

ইরানের ইসলামী বিপ্লবী গার্ড বাহিনী বা আইআরজিসি’র অ্যারোস্পেস ফোর্সের প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আমির আলী হাজিজাদেহ বলেছেন, শত্রুর যেকোনো হামলার বিরুদ্ধে তার দেশের বিমান বাহিনী শক্ত ও দাঁতভাঙ্গা জবাব দেবে।

ইরান ইতোমধ্যেই সব ধরনের পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে এবং তাকে নতুন করে পরীক্ষা করে দেখার প্রয়োজন নেই উল্লেখ করে জেনারেল হাজিজাদেহ বলেন, শত্রুরা হামলা চালানোর মতো কোনো হঠকারিতা দেখালে তার দাঁতভাঙ্গা জবাব দেয়া হবে।

হাজিজাদেহ আরো বলেন, ইহুদিবাদী এবং আমেরিকা ইরানকে এরইমধ্যে বিভিন্ন সময় পরখ করে দেখেছে এবং তারা ভালোভাবেই জানে যে এসবের প্রতি উত্তরে তেহরান কিভাবে জবাব দিয়েছে। তিনি বলেন, “শত্রুদের জেনে রাখা উচিত যে আমাদের শক্তি আছে এবং সেই শক্তির যথাযথ ব্যবহারের বিষয়ে প্রবল ইচ্ছাশক্তিও রয়েছে। তাই শত্রুর যেকোনো পদক্ষেপের বিরুদ্ধে আমরা অত্যন্ত শক্ত জবাব দেব এবং এ ক্ষেত্রে তারা কোনো ধরনের ভুল করার সুযোগ পাবে না।

গত সপ্তাহে ওমান সাগরে ইসরাইলি মালিকানাধীন একটি তেল ট্যাংকারে অজ্ঞাত হামলা হয় এবং এতে ট্যাংকারটি দু’জন বিদেশি ক্রু নিহত হন। ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেত কোনো তথ্যপ্রমাণ উপস্থাপন ছাড়াই ওই হামলার জন্য ইরানকে দায়ী করেন।

এরপর প্রথমে ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডোমিনিক রাব ও তারপর মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টোনি ব্লিঙ্কেন তেল আবিবের সঙ্গে সুর মিলিয়ে ওই হামলার জন্য ইরানকে অভিযুক্ত করেন। পশ্চিমা গণমাধ্যমগুলোতে এ খবর প্রচার হয় যে, ইরানের স্বার্থে আঘাত হানার জন্য তেল আবিবকে সবুজ সংকেত দিয়েছে ওয়াশিংটন ও লন্ডন।জেনারেল হাজিজাদেহ দৃশ্যত ওই হুমকির জবাবে এসব কথা বলেন।

সূত্রঃ পার্সটুডে