লেবানন থেকে হামলা সহ্য করা হবে না: নাফতালি বেনেত

লেবানন থেকে কোনো রকেট হামলা সহ্য করা হবে না বলে জানিয়েছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেত। আজ রবিবার ইসরায়েলের মন্ত্রিসভা বৈঠক শেষে নাফতালি বলেন, লেবানন রাজত্ব কায়েম করার জন্য ইসরায়েলে রকেট হামলা করছে। হামলাকারী যারাই হোক, এজন্য লেবানন সেনাদের দায় নিতে হবে। হামলাকারী যদি ফিলিস্তিনি বিদ্রোহী গোষ্ঠী হয় সেটিও আমাদের কাছে গুরুত্বপূর্ণ নয়। তিনি বলেন, আমরা শুধু সতর্ক করতে চাই যে ইসরায়েলের সীমানায় কোনো হামলা সহ্য করা হবে না।

এর দুদিন আগে ইসরায়েলে ২০টি রকেট হামলা চালানোর দায় স্বীকার করে হিজবুল্লাহ। এরমধ্যে আয়রন ডোম ১০টি রকেট ভূপাতিত করে। যার মধ্যে ছয়টি উন্মুক্ত জায়গায় ও বাকিগুলো লেবাননে পতিত করা হয়। সম্প্রতি ষষ্ঠবারের মতো লেবানন থেকে ইসরায়েলে হামলা করা হলো। ছয়টি হামলার মধ্যে প্রথমবার সবশেষ হামলার দায় স্বীকার করেছে হিজবুল্লাহ।

বেনেত লেবাননের অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সংকটের কথা উল্লেখ করে বলেছেন, ইরান ও হিজবুল্লাহ ইসরায়েলকে দমিয়ে রাখার চেষ্টা করছে। হিজবুল্লাহ ও ইরানি প্রভাবের বিরুদ্ধে জেগে উঠায় তিনি লেবাননের নাগরিকদের প্রশংসা করেছেন। গতকাল শনিবার দ্বিতীয় লেবানন যুদ্ধের ১৫তম বার্ষিকী উপলক্ষে হিজবুল্লাহ মহাসচিব হাসান নাসরুল্লাহ ইসরায়েলের সঙ্গে পাল্টাপাল্টি হামলাকে ‘অত্যন্ত বিপজ্জনক’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। এছাড়া যুদ্ধ শেষ হওয়ার পর থেকে দুদেশের সংঘাত বেড়ে যাওয়ায় তিনি উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার লেবাননে বিমান হামলা চালিয়েছে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী। তারা জানিয়েছে, লেবাননের ভূখণ্ড থেকে দুটি রকেট ইসরায়েলে নিক্ষেপ করার পর এ হামলা হয়েছে। এই হামলাকে ইসরায়েলের ‘আগ্রাসী অভিপ্রায়’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন লেবাননের প্রেসিডেন্ট মাইকেল আউন। তিনি বলেন, দক্ষিণ লেবাননের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতার জন্য এই হামলা সরাসরি হুমকি।

লেবাননের দক্ষিণাঞ্চলের নিয়ন্ত্রণ হিজবুল্লাহর হাতে। তারা নিজেদের রকেট ভাণ্ডার আরও সমৃদ্ধ করে যাচ্ছেন নিয়মিত। অতীতে লেবাননে অবস্থান করা ফিলিস্তিনিরা ইসরায়েলে বিক্ষিপ্তভাবে গোলা নিক্ষেপ করতেন। গত ২০ জুলাই দুটি রকেট ছোড়া হয়েছে। যদিও তাতে কোনো ক্ষয়ক্ষতি কিংবা হতাহতের ঘটনা ঘটেনি। ইসরায়েলও কামানের গোলা নিক্ষেপ করে তার জবাব দিয়েছে।

সূত্র: এএফপি।