লেবাননের বিস্ফোরণের পর ‘পৈশাচিক উল্লাস’ ইসরাইলের সাবেক সংসদের

লেবাননের বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহতের পর ‘স্রষ্টার উপহার’ বলে মন্তব্য করে উল্লাস প্রকাশ করেছেন ইসরায়েলের পার্লামেন্ট নেসেটের সাবেক সদস্য ফেইজলিন। মঙ্গলবারের ওই বিস্ফোরণের পর সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে দেয়া এক পোস্টে তিনি এই উল্লাস প্রকাশ করেন।

ফেইজলিন ফেসবুকে দেয়া পোস্টে বৈরুতে প্রাণঘাতী ওই বিস্ফোরণের জন্য সৃষ্টিকর্তাকে ধন্যবাদ জানান। ওইদিন ইহুদির একটি বিশেষ বাৎসরিক উৎসব ছিল। এই উৎসবের দিনের বৈরুতে বিস্ফোরণের কথা উল্লেখ করে ফেসবুকে তিনি বলেন, আজ ‘তু বি আভ’ উৎসব। একটি আনন্দের দিন। আমাদের ভালোবাসার দিনে এমন দুর্দান্ত উদযাপনের আয়োজন করায় সৃষ্টিকর্তা এবং সব মেধাবী ও সত্যিকারের নায়ক; যারা আয়োজন করেছিলেন তাদের অনেক ধন্যবাদ।

বিস্ফোরকের ব্যাপারে নিজের অভিজ্ঞতার কথা উল্লেখ করে বৈরুতের ওই বিস্ফোরণের ব্যাপারে তিনি বলেন, এটা কোনও দুর্ঘটনা নয়। ফেইজলিন বলেন, আপনি বিশ্বাস করবেন না যে, এটা অপরিষ্কার জ্বালানির গুদাম ছিল। আপনি কি বুঝতে পারছেন, এই নরক আমাদের ওপর ক্ষেপণাস্ত্র বৃষ্টি হিসাবে পড়ার কথা ছিল? বিস্ফোরকের ব্যাপারে আমার কিছু অভিজ্ঞতা আছে।

তিনি বলেন, আমরা মঙ্গলবার বৈরুতের বন্দরে যে বিস্ফোরণ দেখেছি সেটি ছিল অনেক বড়। এর ধ্বংসাত্মক প্রভাব (বিকিরণ ছাড়া) ছিল পারমাণবিক বোমার মতো।

এদিকে, বৈরুতে বিস্ফোরণের পরপরই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ব্যবহারকারীদের অনেকেই ইসরায়েল হামলা চালিয়েছে বলে দাবি করছেন। বিস্ফোরণের আগে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর একটি টুইট ঘিরে এই জল্পনা আরও জোরাল হয়েছে।

মঙ্গলবার ইসরায়েলের রামলি শহরে দেশটির সেনাবাহিনীর একটি ঘাঁটি পরিদর্শনের পরপর এক টুইট বার্তায় সতর্ক করে দিয়ে নেতানিয়াহু বলেন, আমরা আস্তানায় আঘাত করি এবং এখন প্রেরণাদানকারীদের আঘাত করছি। আত্মরক্ষার জন্য আমরা প্রয়োজনীয় সবকিছুই করবো। আমি হিজবুল্লাহসহ তাদের সবাইকে বিষয়টি বিবেচনার পরামর্শ দিচ্ছি।