লিবিয়ায় প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হলেন গাদ্দাফি পুত্র সাইফুল ইসলাম

লিবিয়ার সাবেক স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফির ছেলে সাইফুল ইসলাম গাদ্দাফি দেশটির আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছেন বলে দেশটি গণমাধ্যমগুলো খবর দিয়েছে।

কাতার-ভিত্তিক আল-জাযিরা টেলিভিশন জানিয়েছে, লিবিয়ার গণমাধ্যমগুলো গত বেশ কিছুদিন ধরে সাইফুল ইসলামের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হওয়ার জল্পনা প্রচার করে আসছিল যা সত্য প্রমাণিত হলো।

আগামী ২৪ ডিসেম্বর লিবিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।২০১১ সালে গাদ্দাফি সরকারের পতনের পর এই প্রথম লিবিয়ায় সরাসরি প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

লিবিয়ার নির্বাচন কমিশনের প্রেস সচিব সামি আল-শরিফ দেশটির দৈনিক আল-ইয়াউম আল-সাবি’কে বলেছেন, সাইফুল ইসলাম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রার্থী হওয়ার জন্য লিবিয়ার দক্ষিণাঞ্চলীয় সাবহা শহরে কমিশনের দফতরে নিজের কাগজপত্র জমা দিয়েছেন।

তবে কাগজপত্র যাচাই বাছাই শেষে সাইফুল ইসলামি চূড়ান্ত প্রার্থী হিসেবে অনুমোদন পাবেন কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়।

লিবিয়ার রাজনৈতিক ভাষ্যকার বাদাল হাকিম ফানুশ মনে করছেন, সাইফুল ইসলামের প্রার্থী হওয়ার ঘটনা লিবিয়ার রাজনৈতিক পরিস্থিতিকে উত্তপ্ত করে তুলবে।

লিবিয়ায় ২০১১ সালে সশস্ত্র গণ অভ্যুত্থানে সাবেক স্বৈরশাসক মুয়াম্মার গাদ্দাফি সরকারের পতন হয় এবং গাদ্দাফি তার একাধিক পুত্রসহ বিপ্লবীদের হাতে নিহত হন। সে সময় গাদ্দাফির ছোট ছেলে সাইফুল ইসলাম পালিয়ে গিয়ে নিজের প্রাণ বাঁচিয়েছিলেন।

গাদ্দাফির জীবদ্দশায় সাইফুল ইসলামকে তার উত্তরসূরি মনে করা হতো। কিন্তু ২০১১ সালের গণ অভ্যুত্থানের সময় জনগণের বিরুদ্ধে নির্দয় দমন অভিযানের প্রতি সমর্থন জানানোর কারণে সাইফুল ইসলামের ইমেজ ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

সূএঃ পার্সটুডে