লালমনিরহাটে শাশুড়ির পর্নোগ্রাফি মামলায় জামাই গ্রেফতার

লালমনিরহাটের হাতীবান্ধায় শাশুড়ির দায়ের করা পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনের মামলায় জামাইকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার (২২ আগস্ট) রাতে নীলফামারী জেলার জলঢাকা থানা পুলিশের সহযোগিতায় ওই এলাকা থেকে জামাই ইকবাল হোসেন মান্নাকে গ্রেফতার করে হাতীবান্ধা থানা পুলিশ।

হাতীবান্ধা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওমর ফারুক জানান, হাতীবান্ধা উপজেলার টংভাঙ্গা ইউনিয়নের বাড়াইপাড়া এলাকার মানিক মিয়ার পুত্র ইকবাল হোসেন মান্নানের (৩০) সঙ্গে পার্শ্ববর্তী সির্ন্দুনা ইউনিয়নের এক মেয়ের সঙ্গে প্রথমে প্রেম পরে বিয়ে হয় গত বছরের নভেম্বর মাসের প্রথম সপ্তাহে। ভালোই চলছিল তাদের সংসার। চলতি বছরের গত তিন মাস ধরে উভয়ের পছন্দ আর অপছন্দের কিছু বিষয় নিয়ে দাম্পত্য জীবনে কলহ চলে আসছিল।

তিনি আরও বলেন, একপর্যায়ে মেয়েটি চলে যায় তার বাবার বাড়িতে এবং সেখানেই অবস্থান করেন। এ অবস্থায় ইকবাল হোসেন মান্না তার স্ত্রীর সঙ্গে বিভিন্ন সময় তোলা অন্তরঙ্গ স্পর্শকাতর কিছু ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে তার আত্মীয়দের পাঠায়।

এ ঘটনায় প্রতিকার চেয়ে ওই মেয়ের মা বাদী হয়ে হাতীবান্ধা থানায় তার মেয়ে জামাই ইকবাল হোসেন মান্নানের বিরুদ্ধে শনিবার হাতীবান্ধা থানায় পর্নোগ্রাফি নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ ওইদিন রাতেই পার্শ্ববর্তী নীলফামারী জেলার জলঢাকা থানা পুলিশের সহযোগিতায় ওই এলাকার একটি বাড়ি থেকে ইকবাল হোসেন মান্নাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত ইকবাল হোসেন মান্নাকে রোববার লালমনিরহাট জেলা জজ আদালতে সোপর্দ করলে আদালত তার জামিন নামঞ্জুর করেন।