রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে আটক ১

রোহিঙ্গাদের শীর্ষ নেতা ও আরাকান রোহিঙ্গা সোসাইটি ফর পিস অ্যান্ড হিউম্যান রাইটসের (এআরএসপিএইচ) চেয়ারম্যান মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত সন্দেহে একজনকে আটক করেছে আর্মড ব্যাটালিয়ন পুলিশ (এপিবিএন)।

আটক ব্যক্তির নাম মোহাম্মদ সলিমউল্লাহ ওরফে লম্ব সলিম (২৬)। তিনি আশ্রিত নাগরিক বলে জানা গেছে। শুক্রবার সকালে উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্প-৬ থেকে তাকে আটক করা হয় বলে নিশ্চিত করেছেন ১৪ এপিবিএন অধিনায়ক ও পুলিশ সুপার নাঈমুল হক।

তিনি যুগান্তরকে বলেন, রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহ হত্যাকাণ্ডের পর থেকে আটক সলিম পলাতক ছিলেন। হত্যাকাণ্ডে জড়িত সন্দেহে তাকে আটক করা হয়েছে। তাকে উখিয়া থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।এ বিষয়ে পরবর্তী আইনিব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন বলে জানান এ কর্মকর্তা।

গত বৃহস্পতিবার রাতে আলোচিত এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় অজ্ঞাতনামা ১৫ -২০ জনকে আসামি করে উখিয়া থানায় মামলা করেন নিহত মুহিবুল্লাহর ছোট ভাই মোহাম্মদ হাবিবুল্লাহ।

গত বুধবার রাত পৌনে ৯টার দিকে উখিয়ার কুতুপালং লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প এলাকায় ইস্ট-ওয়েস্ট ১ নম্বর ব্লকের বাড়ির সামনে রোহিঙ্গা নেতা মুহিবুল্লাহকে গুলি করে হত্যা করা হয়।