রায়হানের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আনতে পারেনি মালয়েশিয়ার পুলিশ

গণমাধ্যমে কথা বলার জন্য মালয়েশিয়ায় গ্রেফতার বাংলাদেশি রায়হান কবিরের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আনতে পারেনি দেশটির পুলিশ। শিগিগরই তাকে দেশে ফেরত পাঠানো হবে। মালয়েশিয়ায় রায়হানের আইনজীবী সুমিতা শান্তিনি কিষনা ও সেলভারাজ চিন্নিয়াহ গণমাধ্যমকে এ কথা বলেছেন।

গত ৩ জুলাই ইংরেজি অফিসিয়াল ইউটিউব চ্যানেলে ‘লকডআপ ইন মালয়েশিয়ান লকডাউন-১০১ ইস্ট’ শীর্ষক একটি অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

ঐ প্রতিবেদনে মালয়েশিয়ায় থাকা প্রবাসী কর্মীদের প্রতি লকডাউন চলাকালে দেশটির সরকারের নিপীড়নমূলক আচরণের বিষয়টি উঠে আসে। ঐ প্রতিবেদনে বক্তব্য দেন রায়হান কবির। এই ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে মালয়েশিয়ার পুলিশ তার বিরুদ্ধে সমন জারি করে। ২৪ জুলাই তাকে গ্রেফতার করা হয়।

১৪ দিন জিজ্ঞাসাবাদের পর গত ৬ আগস্ট পুলিশ তাকে আদালতে হাজির করে। পুলিশ ১৪ দিনের রিমান্ড চাইলে আদালত ১৩ দিন মঞ্জুর করেন। গতকাল রায়হানের রিমান্ড শেষ হয়েছে।

তার আইনজীবী সুমিতা শান্তিনি কিষনা বলেন, রায়হানের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ গঠন করা হয়নি। ইমিগ্রেশন পুলিশ তাকে বাংলাদেশে ফেরত পাঠোনোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এখন তার করোনা পরীক্ষা করা হবে।

এরপর বিমানের টিকিট প্রাপ্তি সাপেক্ষে তাকে দেশে ফেরত পাঠানো হবে। ধারণা করা হচ্ছে, আগামী সপ্তাহেই তিনি দেশে ফিরতে পারবেন। তবে রায়হান আর মালয়েশিয়া যেতে পারবেন না। কারণ তাকে কালো তালিকাভুক্ত করা হবে।