রংপুরে ইউএনও-দের নিরাপত্তায় ১০ জন করে সশস্ত্র আনসার মোতায়েনের সিদ্ধান্ত

রংপুর বিভাগের ৮ জেলার ৫৮ উপজেলার ইউএনও-দের নিরাপত্তা নিশ্চিতে ১০ জন করে আনসার মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিতে আনসারের পক্ষ থেকে একটি চিঠি ইস্যু করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বাহিনীর রংপুর রেঞ্জ পরিচালক একেএম জিয়াউল আলম স্বাক্ষরিত এক পত্রে প্রতিটি জেলা কমান্ড্যান্টকে এ নির্দেশ দেওয়া হয়।

ইতোমধ্যে শুক্রবার সকালে রংপুর সদর উপজেলায় ১০ জন আনসার সদস্য মোতায়েন করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে বিভাগের সব উপজেলায় এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়ন করা হবে।
রংপুর জেলা প্রশাসক আসিফ আহসান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট উপজেলার ইউএনও ওয়াহিদা খানমের ওপর দুর্বৃত্তদের হামলার ঘটনার পরই এই ব্যবস্থা নেওয়া হল।

জেলা কমান্ড্যান্টদের কাছে পাঠানো ওই চিঠিতে প্রতিটি উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে একজন পিসি, একজন এপিসি এবং ৮ জন আনসারসহ ১০ সশস্ত্র আনসার সদস্য মোতায়েনের অনুরোধ জানানো হয়।

এতে বলা হয়, রংপুর বিভাগের আট জেলার (রংপুর, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, নীলফামারী, গাইবান্ধা, পঞ্চগড়, দিনাজপুর ও ঠাকুরগাঁও) ৫৮টি উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে একজন পিসি, একজন এপিসি ও আটজন আনসারসহ মোট ১০ জন করে সশস্ত্র অঙ্গীভূত আনসার সদস্য মোতায়েন করার জন্য অনুরোধ করা হল।