যৌথ মহড়ায় অংশ নিতে ইসরাইলে মরক্কোর সামরিক বিমান

ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে যৌথ সামরিক মহড়ায় অংশ নিতে প্রথমবারের মতো মরক্কোর একটি সামরিক বিমান ইসরাইলে অবতরণে করেছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

মরক্কো বিমান বাহিনীর একটি সি-১৩০ কার্গো বিমান গত রোববার ইসরাইলের দক্ষিণাঞ্চলীয় ‘হাতজোর’ বিমান ঘাঁটিতে অবতরণ করে। প্রেসটিভি জানিয়েছে, পাবলিক ফ্লাইট-ট্র্যাকিং সফটওয়্যারে বিমানটির অবস্থান ধরা পড়ে; যদি ইহুদিবাদী ইসরাইলি সেনাবাহিনী মরক্কোর সামরিক বিমান অবতরণের খবর নিশ্চিত করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে।

ইসরাইলি সেনাবাহিনীর একজন মুখপাত্র বলেছেন, “বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সেনাবাহিনীর সঙ্গে ইসরাইলি সেনাবাহিনীর সহযোগিতা রয়েছে এবং এসব দেশের সেনা কর্মকর্তাদের সঙ্গেও আমাদের কর্মকর্তাদের নিয়মিত বৈঠক হচ্ছে।” তবে তিনি বিষয়টিকে ‘স্পর্শকতার’ উল্লেখ করে এসব দেশের নাম প্রকাশ করতে অস্বীকৃতি জানান।

উত্তর আফ্রিকার মুসলিম দেশ মরক্কো গত ডিসেম্বরে মুসলিম বিশ্বের প্রধান শত্রু ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করে। অল্প কিছু দিনের ব্যবধানে সংযুক্ত আরব আমিরাত, বাহরাইন ও সুদানের পর চতুর্থ দেশ হিসেবে এই ন্যক্কারজনক কাজ করে মরক্কো।

মিশর ও সিরিয়ার নেতৃত্বে ১৯৭৩ সালে ইসরাইলের বিরুদ্ধে যুদ্ধে অংশ নিয়েছিল মরক্কো। অবশ্য পরবর্তীতে মিশর তেল আবিবের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থাপন করে; যদিও সিরিয়া এখনও ইসরাইলকে ফিলিস্তিন দখলদার অবৈধ রাষ্ট্র মনে করে এবং তেল আবিবের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান বজায় রেখেছে।

সূএঃ পার্সটুডে