যুক্তরাষ্ট্রে স্বাধীনতা দিবসে ১৫০ জনকে গুলি করে হত্যা

স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের সময় পুরো যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে গুলি করে অসংখ্য মানুষকে হত্যা করা হয়ছে। আর এসব হয়েছে সাধারণ নাগরিকদের মধ্য থেকে।

জানা গেছে, ৪ জুলাই আমেরিকা জুড়ে পালিত হয়েছে স্বাধীনতা দিবস। এই সময় ছুটি ও উৎসবের আমেজের মাঝেই দেশটিতে চার শতাধিক গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে, মারা গেছে কমপক্ষে ১৫০ জন। গান ভায়োলেন্স আর্কাইভের বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে সিএনএন।

ঘটনাগুলো ঘটেছে শুক্রবার থেকে রবিবার এই ৭২ ঘণ্টার মাঝে। তবে এ তালিকা এখনো সম্পূর্ণ নয়। ভুক্তভোগী বা তাদের পরিবারকে সংগঠিত সহিংসতার তথ্য দিতে অনুরোধ জানিয়েছে একাধিক রাজ্যের পুলিশ।

শুধু নিউইয়র্কে ২১টি গোলাগুলির ঘটনায় ভুক্তভোগী হয়েছে ২৬ জন। অবশ্য আগের বছর ২৫টি ঘটনায় গুলি করা হয় ৩০ জনকে। এ কথা জানিয়েছে স্থানীয় পুলিশ বিভাগ। এর মধ্যে ৪ জুলাই ১২টি ঘটনায় গোলাগুলির শিকার হয়েছে ১৩ জন। গত বছর একই দিনে ৮টি ঘটনায় ভুক্তভোগী হয় ৮জন। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এখানে গোলাগুলি বেড়েছে বলে জানানো হয়।

পুলিশ বলছে, গত বছরের চেয়ে ৪০ ভাগ সহিংসতা বেড়েছে। ৭৬৭টি ঘটনায় আক্রান্ত হয়েছে ৮৮৫ জন। শিকাগো পুলিশ সুপার ডেভিড ব্রাউনের মতে, ‘বছরের সবচেয়ে চ্যালেঞ্জিং সপ্তাহান্ত’ ছিল এবারের স্বাধীনতা দিবস। ৮৩ জন মানুষকে গুলি করা হয় এ সময়, যাদের মধ্যে নিহত হয় ১৪ জন। এর মধ্যে ৫ ও ৬ বয়সী মেয়ে শিশুও রয়েছে। আছে সেনা সদস্যও। এ ছাড়া আটলান্টা, ভার্জিনিয়া, ডালাসসহ একাধিক এলাকায় সংগঠিত সহিংসতার তথ্য প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যমগুলো।