মুজিববর্ষে পাঁচ ঘাতককে দেশে আনার আশা পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেছেন, বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত ১২ খুনির ছয়জনকে বর্তমান সরকার শাস্তি দিয়েছে। আশা করছি, মুজিববর্ষে বাকি পাঁচ ঘাতককে দেশে এনে বিচারের সন্মুখীন করা হবে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে শনিবার ফরেন সার্ভিস একাডেমিতে জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ শেষে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন। এ সময় সেখানে তিনি জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘গত কয়েক বছরে ১২ জন আত্মস্বীকৃত খুনির ছয়জনকে শাস্তি দেয়া হয়েছে। একজন মারা গেছেন, এখনও পাঁচজনের রয়েছে শাস্তি কার্যকরের বাকি। আমাদের আশা, আমাদের প্রত্যাশা, এ মুজিববর্ষে বাকি সব ঘাতককে বাংলাদেশে এনে বিচারের সন্মুখীন করা হবে।’

তিনি বলেন, ‘আপনারা জানেন এ মুজিববর্ষে একজনকে পেয়েছি, (খুনিকে) তাকে বিচারের সন্মুখীন করা হয়েছে। আরও দু’জনকে আনার বিষয়ে আমরা কিছুটা অগ্রসর হয়েছি। এখনও পুরোপুরি বলা যাচ্ছে না।’

মন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সব ধরনের প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। যাদের পুরোপুরি ঠিকানা আমরা জানি না, তারা কোথায় আছে সেগুলো জানার বিষয়ে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। দেশবাসী এবং প্রবাসী ভাইদের বলব আপনারা যদি এদের বিষয়ে তথ্য জানেন, আমাদের কাছে দেবেন। তাহলে এ গ্লানি দূর করতে পারব।’

এদিকে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মসজিদে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধু ও তার পরিবারের মৃত্যুবরণকারী সদস্যদের আত্মার মাগফিরাত ও দেশবাসীর মঙ্গল কামনা করে দোয়া-মাহফিলের আয়োজন করা হয়। এ সময় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম ও পররাষ্ট্র সচিব মাসুদ বিন মোমেন উপস্থিত ছিলেন।