মালয়েশিয়ার নবম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিলেন ইসমাইল সাবরি

মালয়েশিয়ার নবম প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন ইসমাইল সাবরি ইয়াকুব। দেশটির উপ-প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালনের ৪৫ দিনের মাথায় প্রধানমন্ত্রী হলেন তিনি। এর আগে মুহিউদ্দীন সরকারের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিরক্ষামন্ত্রী হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন তিনি। আজ শনিবার (২১ আগস্ট) ইস্তানা নিগারায় দেশটির রাজা এ শপথবাক্য পাঠ করান।

২০০৮ সালে তিনি আবদুল্লাহ আহমদ বাদাবীর অধীনে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রী নিযুক্ত হন এবং এক বছর পরে নাজিব রাজাকের অধীনে তাকে অভ্যন্তরীণ বাণিজ্য, সমবায় এবং ভোগবাদ মন্ত্রী করা হয়।

শপথগ্রহণ শেষে ইসমাইল সাবরি তার নিয়োগপত্রে স্বাক্ষর করেন। যা পরবর্তীতে প্রধান বিচারপতি সত্যায়িত করেন। ৬১ বছরের ইসমাইল সাবরি মালয়েশিয়ার ঐতিহ্যবাহী পোশাকে স্ত্রী মুহাইনি জায়নিল আবিদিনকে সঙ্গে নিয়ে শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দেন।

এ সময় রাজার সঙ্গে ঐতিহ্যবাহী পোশাকে দেশটির রাণীও উপস্থিত ছিলেন। ছিলেন সদ্য সাবেক প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দীন ইয়াসিন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাক। এছাড়া বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারাও উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, নতুন প্রধানমন্ত্রীর শপথ গ্রহণের দিনে বিরোধীদের বিক্ষোভের আশঙ্কায় কড়া নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে রাজধানী কুয়ালালামপুরে। বিশেষ করে মারদেকা স্কয়ার, মসজিদ জামেক ও সোগো এরিয়াতে যানবাহন প্রবেশ করতে দেয়া হয়নি। বসানো হয়েছে রোডব্লকও।

উল্লেখ্য, প্রধানমন্ত্রী মুহিউদ্দীন ইয়াসিন পদত্যাগের পর নতুন প্রধানমন্ত্রী নিয়োগের প্রক্রিয়া শুরু করেন দেশটির রাজা। সেখানে সব সংসদ সদস্যদের লিখিত মতামত নিয়ে সংখ্যাগরিষ্ঠতার ভিত্তিতে শুক্রবার (২০ আগস্ট) ইসমাইল সাবরিকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ঘোষণা দেন রাজা।

উল্লেখ্য, গত চার বছরেরও কম সময়ে এ নিয়ে তিনবার মালয়েশিয়ায় প্রধানমন্ত্রী বদল হলো। দেশটিতে গত কয়েক বছর ধরেই রাজনৈতিক অস্থিরতা বিরাজ করছে। ১৭ মাসের ক্ষমতায় দেশে করোনা সংক্রমণ বৃদ্ধি এবং অর্থনৈতিক মন্দার কারণে দেশের রাজনীতিতে বিশৃঙ্খল পরিস্থিতি তৈরি হওয়ায় ক্ষমতা ছাড়তে বাধ্য হন মুহিদ্দিন ইয়াসিন।

সূত্র : রয়টাস, আল জাজিরা