মালামাল না দিয়েই ৫০ লাখ টাকার বিল তুলল ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান

রংপুরের মিঠাপুকুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মালামাল সরবরাহ না করেই প্রায় ৫০ লাখ টাকার ৬টি টেন্ডারের বিল তুলে নিয়েছে দুই ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান।

অর্থবছর শেষ হওয়ার মাত্র ৩ দিন আগে এসব টেন্ডারের বিল পরিশোধের ঘটনা জানাজানি হওয়ার পর মালামাল পেতে দুই ঠিকাদারের সঙ্গে দেনদরবার শুরু করেছেন দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির সদস্যসহ সংশ্লিষ্টরা। ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান ও উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা টাকা পরিশোধের কথা স্বীকার করলেও এতে অনিয়ম দেখছেন না তারা।

২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে ওষুধ, যন্ত্রপাতি, লিলেন সামগ্রী, গজ-ব্যান্ডেজ-তুলা, কেমিকেল রি-এজেন্ট ও আসবাবপত্র ক্রয়ের মোট ৪৮ লাখ ৯৮ হাজার ৯৩৭ টাকা ঠিকাদারদের বিলের ব্যয় মঞ্জুরি প্রদানের জন্য ২৭ জুন মহাপরিচালক বরাবর চিঠি দেন উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আব্দুল হাকিম।

এর আলোকে ঠিকাদাররা তাদের সমুদয় টাকা তুলে নেন। কিন্তু মালামাল এখনও বুঝে না পাওয়ার কথা জানিয়েছেন রংপুর মিঠাপুকুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের স্টোর কিপার মহিদুর ইসলাম।

আইএমও ও দরপত্র মূল্যায়ন কমিটির সদস্য ডা. এম এ হালিম বলেন, ‘ঠিকাদার ১৫ দিন সময় নিয়েছে মালামাল বুঝিয়ে দিতে কিন্তু এখনও পর্যন্ত তা বুঝিয়ে দেয়নি।’

৬টি পৃথক টেন্ডারে অংশ নিয়ে ৫টি পায় মেধা কন্সট্রাকশন। রংপুর নগরীর ধাপ শ্যামলী লেনের যে ঠিকানা ব্যবহার করা হয়েছে, সেটি একটি আবাসিক ভবন। সেখানে গিয়ে মেধা কন্সট্রাকশনের মালিক আলতামস হোসেনকে পাওয়া যায়নি।

তবে ফোনে মালামাল সরবরাহ না করে বিল তুলে নেয়ার কথা স্বীকার করেন রংপুর মেধা কনস্ট্রাকশনের স্বত্বাধিকারী আলতামাস হোসেন।

তিনি বলেন, ‘জুন মাসের শেষ প্রান্তে ওই অল্প সময়ের মধ্যে মালামাল দেয়া যায়নি। আমাকে ৩৩ লাখ টাকা বিল দিয়েছে।’

মালামাল বুঝে পাওয়ার আগেই বিল পরিশোধের কথা স্বীকার করলেও এটিকে অনিয়ম মনে করছেন না রংপুর মিঠাপুকুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আব্দুল হাকিম।

আর এ বিষয়ে দায়িত্ব এড়িয়ে যান রংপুরের সিভিল সার্জন হিরম্ব কুমার রায়।

তিনি বলেন, ‘এ বিষয়ে আমি জানি না। যদি কোনো অনিয়ম হয় তাহলে ব্যবস্থা গ্রহণ করবো তদন্ত সাপেক্ষে।’

২৭ জুনের ৮৬৬ নম্বর স্মারকের চিঠিতে ঠিকাদারদের সরবরাহকৃত মালামাল বুঝে পাওয়া সংক্রান্ত বিল-চালান-কার্যাদেশ, প্রশাসনিক অনুমোদনপত্র, বিভাজনের অনুলিপি, অর্থ বরাদ্দের অনুলিপি, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তার প্রত্যয়নপত্র, চুক্তিনামার ফটোকপি, সার্ভে কমিটির সন্তোষজনক প্রত্যয়নপত্র এবং স্টোর কিপারের প্রত্যয়নপত্র সংযুক্ত বলে উল্লেখ রয়েছে।