মার্কিন বিমানবাহিনী ক্রিমিনাল, তাদেরকে ইরাক ছাড়তেই হবে: নাজুবা

ইরাকের অন্যতম প্রতিরোধকামী সংগঠন আন-নাজুবা বলেছে, ইরাক থেকে আমেরিকার সমস্ত সেনা প্রত্যাহার করতে হবে, এছাড়া তারা অন্য কিছু মানবে না। সংগঠনটি মার্কিন বিমান বাহিনীকে ‘ক্রিমিনাল’ বলেও আখ্যা দিয়েছে।

ইরাক থেকে সেনা প্রত্যাহারের ব্যাপারে বাগদাদ এবং ওয়াশিংটনের মধ্যে নতুন করে যে চুক্তি হয়েছে তার প্রতিক্রিয়ায় এসব কথা বলেছে আন-নাজুবা।

ইরাকের প্রধানমন্ত্রী মুস্তাফা আল-কাজেমি এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গতকাল (সোমবার) বৈঠকে বসেন এবং মার্কিন সেনা প্রত্যাহারের ব্যাপারে আলোচনার পর এই চুক্তিতে পৌঁছান যে, ইরাকে মার্কিন সেনাদের যুদ্ধ মিশন শেষ হচ্ছে। তবে ইরাকে যেসব মার্কিন সেনা মোতায়েন আছে তারা লজিস্টিক স্পেশালিস্ট, মিলিটারি অ্যাডভাইজার, ট্রেইনার বা অন্য কোনো নামে ইরাকে থেকেই যাবে।

ইরাক এবং আমেরিকার মধ্যে নতুন চুক্তিতে বলা হচ্ছে- ইরাকের নিরাপত্তার বিষয়টি বিবেচনায় রেখে মার্কিন সেনারা সেখানে উপদেষ্টার ভূমিকা পালন করবে। কিন্তু প্রতিরোধকামী সংগঠন আন-নাজুবা এই যুক্তিকে ভালো চোখে দেখছে না।

সংগঠনের মুখপাত্র নাসের আল-শাম্মারি বলেন, “মার্কিনিদের প্রতি আমাদের কোনো আস্থা নেই এবং কোনভাবেই তাদের উপস্থিতি আমরা মেনে নিতে পারি না। আমরা তীব্রভাবে মার্কিন সামরিক বাহিনীর উপস্থিতির বিরোধিতা করছি এবং ইরাকের মাটি থেকে মার্কিন সেনাদের সম্পূর্ণভাবে প্রত্যাহার করা হবে।” লেবাননের আল মায়াদিন টেলিভিশন চ্যানেলকে দেয়া সাক্ষাৎকারে নাসের আল-শাম্মারি এসব কথা।

সূত্রঃ পার্সটুডে