মারবেল খেলা নিয়ে মারামারি, শিশুকে পিটিয়ে হত্যা

ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলায় মারবেল খেলাকে কেন্দ্র করে মো. শান্ত (১২) নামের এক শিশুকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। শনিবার রাতে ঢাকায় নেয়ার পথে লঞ্চে তার মৃত্যু হয়। রোববার তার লাশ তজুমদ্দিনে আনা হয়।

নিহত শান্ত উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের মো. সিরাজের ছেলে।

থানার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকালে উপজেলার শম্ভুপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সিরাজের ছেলে শান্ত (১২) ও একই বাড়ির শফিউল্যাহর ছেলে জিহাদের (১০) সঙ্গে মারবেল খেলা নিয়ে মারামারি হয়। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে শান্তকে এলোপাথাড়ি মারপিট করে কবরস্থানে দেয়ালের সঙ্গে মাথা ঠুকে দেয় জিহাদের বাবা শফিউল্যাহ। এতে শান্ত জ্ঞান হারিয়ে ফেলে।

এ অবস্থায় শান্তর বাবা সিরাজ ও মা রাবেয়া এগিয়ে আসলে তাদেরকেও মারপিট করে শফিউল্লাহ। পরে শিশু শান্তকে উদ্ধার করে তজুমদ্দিন হাসপাতালে নিয়ে আসে।

হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. নাসরিন ফাতেমা জানান, শিশুটি বমি করছিল। অবস্থা আশংকাজনক হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ভোলা সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ভোলায় তার অবস্থার উন্নতি না হওয়ায় শনিবার ঢাকায় রেফার করা হয়। পরে ঢাকা নেয়ার পথে লঞ্চে শান্ত মারা যায়।

তজুমদ্দিন থানার ওসি এসএম জিয়াউল হক জানান, ময়নাতদন্তের জন্য লাশ মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। শান্তর পরিবার আমাদের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছে। তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।