মানসিক ভারসাম্যহীন অভিনেতা শাহরিয়ার শুভ, মিলেছে সন্ধান

অবশেষে অভিনেতা শাহরিয়ার শুভর সন্ধান মিলেছে। তিনি এখন জামালপুরের সরিষাবাড়ি ডাকবাংলোতে নিরাপদে আছেন। রোববার (৩০ আগস্ট) এ তথ্য নিশ্চিত করেন অভিনয় শিল্পী সংঘের সাধারণ সম্পাদক আহসান হাবিব নাসিম।

গেল দুইদিন ধরে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে শুভর কিছু ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে।

একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী ফেসবুকে শুভর কিছু ছবি পোস্ট করেন। অনেকেই ফেসবুকে লেখেন, ‘সরিষাবাড়ি উপজেলার শিমলা বাজারে এলোমেলোভাবে ঘোরাফেরা করতে দেখা যায় এই ব্যক্তিকে। জিজ্ঞেস করলেও কোনো কথার উত্তর দেয় না। মনে হয় মানসিক ভারসাম্যহীন। কেউ যদি চিনেন তাহলে সরিষাবাড়ি হাসপাতালে যোগাযোগ করুন।’

 

ওই পোস্ট শেয়ার দিয়ে শুভর খোঁজ জানতে চেয়েছেন বেশিরভাগ শিল্পী-নির্মাতা। কিন্তু আজ দুপুর পর্যন্ত কোনো তথ্য দিতে পারেননি কেউ। অবশেষে সরিষাবাড়ি হাসপাতালে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এমন একটি লোককে হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও তিনি গতকাল শনিবার ভোর রাতে পালিয়ে যান।

বিষয়টি নিয়ে ডিরেক্টরস গিল্ডের সাধারণ সম্পাদক এস এ হক অলিক জানান, আমরা গতকাল থেকে আমি আর নাসিম ভাই তার খোঁজ নিচ্ছি। অবশেষে সবার প্রচেষ্টায় অবশেষে আজ দুপুরের দিকে শাহরিয়ার শুভর খোঁজ মেলে। শুভর মায়ের সঙ্গেও আমাদের কথা হয়েছে। তার খোঁজ পাওয়ার পর আমরা বিষয়টি পুলিশকে অবগত করেছি। ডাকবাংলোতে তার চিকিৎসা সেবা চলছে।

আহসান হাবিব নাসিম বলেন, ‘শুভর সাথে আমার কথা হয়েছে। সে আমাকে জানালো সরিষাবাড়িতে একটা নাটকের শুটিংয়ের জন্য গিয়েছিল। মাঝে একদিন বিরতি ছিল। সেই ফাঁকে সে ঘুরতে বের হয়ে একটি চায়ের দোকানে চা খান। এরপর তার কি হয় সে নিজেও জানেনি।

প্রসঙ্গত, ১৯৯৮ সাল থেকে নিয়মিত টিভি নাটকে অভিনয় করছিলেন শাহরিয়ার শুভ। এর মধ্যে শতাধিক নাটকের গুরত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেন। শিহাব শাহীনের ‘ভালোবাসার চতুষ্কোণ’, ডি এ তায়েবের ‘ডিবি’, নিমা রহমানের ‘গুলশান অ্যাভিনিউ’সহ শূন্য দশকের প্রায় সব নির্মাতার সঙ্গে কাজ করেছেন শুভ। তবে গেল কয়েকবছর থেকে তেমন একটা তাকে মিডিয়ায় দেখা যায় না।