মাটি কাটতে গিয়ে ২৫ বছর পূর্বের অক্ষত মৃতদেহ উদ্ধার!

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর যদুবয়রা ইউনিয়নের বহল বাড়িয়ায় বাড়ি করার জন্য মাটি কাটতে গিয়ে কবরস্থ করার ২৫ বছর পরে অক্ষত অবস্থায় মৃতদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা। মৃত মনোহর মিস্ত্রির ছেলে নূরুজ্জামানের অক্ষত মৃতদেহ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, বহলবাড়িয়া গ্রামের আতর আলীর ছেলের বাড়ি তৈরির জন্য মাটি কাটতে গিয়ে মৃতদেহ দেখতে পাই মাটিয়ালরা। পরে স্থানীয়রা এসে মৃতদেহ সনাক্ত করে এবং সন্ধ্যায় বহলবাড়িয়া কবরস্থানে পুনরায় দাফন করা হয়।

মৃতদেহ সনাক্ত করে নিহতের মামাতো ভাই সানোয়ার বলেন, নুরুজ্জামান একজন সৎ কাপড়ের ব্যবসায়ী ছিলেন।প্রায় ২৫ বছর আগে ঢাকা থেকে বাড়ি ফেরারপথে ডাকাতদল তাকে ধরে কুমারখালী গড়াই নদীর পাড়ে মুখের মধ্যে বিষাক্ত পলিথিন ও গামছা দিয়ে অজ্ঞান করে মালামাল লুট করে ফেলে রেখে চলে যায়।

পরবর্তীতে খোঁজাখুজির একপর্যায়ে তাকে নদীর পাড় থেকে উদ্ধার করা হয় এবং প্রায় এক মাস পর চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেলে বাড়ির পাশের বাগানে দাফন করা হয়। আজ নিহতের চাচাতো ভাই বাড়ি করার জন্য মাটি কাটতে গেলে পুনরায় মৃতদেহটি অক্ষত অবস্থায় পাওয়া যায়।

চৌরঙ্গী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ ইনস্পেক্টর রাকিব হাসান জানান,মাটি কাটতে গিয়ে ২৫ বছরের পুরানো নুরুজ্জামান নামের এক ব্যক্তির মৃতদেহ উদ্ধার করে পুনরায় দাফন করেছে স্থানীয়রা।এদিকে ২৫ বছরের পুরানো মৃতদেহ উদ্ধারের খবর ছড়িয়ে পড়লে উৎসুক জনতা ভিড় জমায় দেখার জন্য।