ভিয়েনা সংলাপের প্রতি জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের সমর্থন ঘোষণা

ইরানের পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের লক্ষ্যে অস্ট্রিয়ার রাজধানী ভিয়েনায় গত এপ্রিল থেকে চলমান সংলাপের প্রতি সমর্থন ঘোষণা করেছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ। জাতিসংঘের মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত এই সমঝোতা আবার পুরোপুরি বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়ে নিরাপত্তা পরিষদে যে প্রতিবেদন পাঠিয়েছিলেন তার ওপর আলোচনা করে এ সমর্থন ঘোষণা করা হয়েছে।

বুধবার নিউ ইয়র্কে জাতিসংঘের সদরদপ্তরে নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশগুলোর প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ২০২০ সালের গোড়ার দিকে বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর এই প্রথম নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য দেশগুলোর উপস্থিতিতে কোনো বৈঠক অনুষ্ঠিত হলো।

গুতেরেস পরমাণু সমঝোতা সম্পর্কে নিরাপত্তা পরিষদকে যে প্রতিবেদন দেন তার বিষয়বস্তু মঙ্গলবার গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়। তাতে তিনি পরমাণু সমঝোতা মেনে ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার বা শিথিল করার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রতি আহ্বান জানান। নিরাপত্তা পরিষদে বুধবারের বৈঠকে গুতেরেসের ওই আহ্বানের পুনরাবৃত্তি করেন জাতিসংঘের উপ মহাসচিব রোসেমারি ডিকারলো। তিনি বলেন, পরমাণু সমঝোতা পুরোপুরি বাস্তবায়ন করতে হলে ইরানের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করার কোনো বিকল্প নেই।একইসঙ্গে তিনি ইরানকে পরমাণু সমঝোতা পুরোপুরি মেনে চলার আহ্বান জানান।

ভিয়েনায় চলমান সংলাপে পরমাণু সমঝোতা পুরোপুরি বাস্তবায়ন করে এ সংক্রান্ত অচলাবস্থা অবসানের ‘চমৎকার সুযোগ’ তৈরি হয়েছে বলে উল্লেখ করেন জাতিসংঘের উপ মহাসচিব।

বৈঠকে ইউরোপীয় ইউনিয়ন বা ইইউ’র রাষ্ট্রদূত ওলোফ স্কুগ ভিয়েনা সংলাপকে কাজে লাগানোর জন্য ইরান ও আমেরিকার প্রতি আহ্বান জানান। তিনি বলেন, সময় আমাদের অনুকূলে নেই; আজ পরমাণু সমঝোতা পুনরুজ্জীবনের যে সীমিত সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে তা ভবিষ্যতে আর নাও থাকতে পারে। তিনি বলেন, আমেরিকা ইরানবিরোধী নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারে নিজের যে প্রস্তুতি ঘোষণা করেছে তাকে স্বাগত জানায় ইইউ।

সূএঃ পার্সটুডে