বৈরুতে কাতারের চিকিৎসাসেবা

বৈরুত বন্দরে মহাবিস্ফোরণের পর বিশ্বের অনেক দেশের মতো লেবাননের পাশে দাঁড়িয়েছে কাতার। সরকারি ও সেসরকারি উদ্যোগে বৈরুতে জরুরি সেবা ও চিকিৎসা ব্যবস্থা নিশ্চিত করেছে কাতার।

গত মঙ্গলবার লেবাননের রাজধানী বৈরুতের বন্দর নগরীতে ভয়াবহ বিস্ফোরণ ঘটে। এতে দেড় শতাধিক লোক নিহত হয় এবং পাঁচ হাজারের বেশি আহত হয়। বৈরুতের এ মহাবিপর্যয় কাটাতে ত্রাণ সামগ্রি ও চিকিৎসাসেবা নিয়ে এগিয়ে আসে বিশ্বের বিভিন্ন দেশ।

বিস্ফোরণে হতাহতদের চিকিৎসাসেবার দিতে অন্যান্য দেশের মতো কাতারও এগিয়ে আসে। চিকিৎসাসেবা ছাড়াও প্রয়োজনীয় সেবাও প্রদান করা হয়।

দোহায় নিযুক্ত লেবাননের রাষ্ট্রদূত ফারাহ বারি বৈরুতের চলমান মহাবিপর্যয় কাটাতে কাতার সরকার ও জনগনের স্বতস্ফুর্ত সহযোগিতার ভূয়সী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, ‘মহাবিস্ফোরণের কারণে লেবানন এখন মহাবিপর্যয়ের মুখোমুখি। লেবাননকে চলমান সঙ্কট থেকে মুক্ত করতে কাতার সরকার ব্যাপকভাবে সহযোগিতার হাত বাড়িয়েছে, যা ভুলবার মতো নয়।’

এছাড়া বৈরুতের বিস্ফোরণে সহবেদনা জানিয়ে দোহায় অবস্থিত শেরাটন হোটেল, কাতার জাতীয় জাদুঘর ও টর্চ টাওয়ারসহ বড় বড় বিল্ডিংয়ের দেওয়ালে জ্বলে উঠে লেবাননের পতাকার ছবি।