বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের মাকে হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হয়েছে

ভোলায় বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের মা মালেকা বেগম (৯৬) অসুস্থ হয়ে পড়ায় তাকে সেনাবাহিনীর একটি মেডিকেল টিমের নেতৃত্বে হেলিকপ্টারে ঢাকায় আনা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে ঢাকায় আনার পর তাকে সিএমএইচের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

মালেকা বেগম দীর্ঘদিন ধরেই শ্বাসকষ্টে ভুগছিলেন। তার কিডনি সমস্যাও দেখা দেয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে কর্নেল আকবর মালেকা বেগমের উন্নত চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন। দুপুরে লেবুখালী ক্যান্টনমেন্টের একজন সেনা কর্মকর্তার নেতৃত্বে একটি টিম ভোলায় যায়। ওই টিম তাকে ঢাকায় নেয়ার ব্যবস্থা করে।

এর আগে, ভোলার জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মাসুদ আলম ছিদ্দিক, পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার, সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদের প্রতিনিধি হিসেবে জেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক, ভোলার ২৫০ শয্যা হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক মো. সিরাজুল ইসলাম তার চিকিৎসার সার্বিক তদারকি করেন।

গত মঙ্গলবার তাকে মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য সংরক্ষিত ৯নং ভিআইপি কেবিনে ভর্তি করে চিকিৎসা দিচ্ছিলেন স্থানীয় ডাক্তাররা। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেয়ার পরামর্শ দেন হাসপাতালের আবাসিক ডাক্তার তৌয়বুর রহমান।

বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের ভাইয়ের ছেলে অধ্যক্ষ মো. সেলিম জানান, তার দাদির হাত-পা ফুলে গেছে। তিনি সবার কাছে দোয়া চান। ভোলার আলীনগর মৌটুপি গ্রামের মোস্তফা কামালনগরের বাড়িতে বড় ছেলে ও নাতিদের সঙ্গে থাকেন মালেকা বেগম।

বীরশ্রেষ্ঠ মোস্তফা কামালের বাড়ি দৌলতখানের সৈয়দপুর গ্রামে ছিল। নদী ভাঙনের পর সেনাবাহিনীর দেয়া ভোলার আলীনগরের বাড়িতেই মালেকা বেগম বসবাস করতেন।