বিষ প্রয়োগ: জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে রাশিয়ার বিরোধী দলীয় নেতা

রাশিয়ার বিরোধী দলীয় নেতা আলেক্সেই নাভালনিকে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। ফ্লাইটে ওঠার পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন। তার অবস্থা এতই খারাপ হয়েছে যে সাইবেরিয়ার একটি হাসপাতালে কোমায় রাখা হয়েছে। তাকে ভেন্টিলেটরের মাধ্যমে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

বৃহস্পতিবার কাতার ভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম  এ খবর জানিয়েছে।

বৃহস্পতিবার নাভালনির মুখপাত্র কিরা ইয়ারমিশ বলেছেন, সাইবেরিয়া থেকে মস্কোতে ফিরছিলেন ৪৪ বছরের বিরোধী দলের নেতা নাভালনি। হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে বহনকারী বিমান জরুরি অবতরণ করে।

জানিয়েছে, সাইবেরিয়া শহরে ওমস্ক হাসপাতালে তাকে আইসিইউতে রাখা হয়েছে।

আইসিইউতে তার অবস্থা নিয়ে পরস্পরবিরোধী বক্তব্য দিয়েছেন চিকিৎসকরা। তারা বলছেন, তার অবস্থা স্থিতিশীল তবে তার জীবন ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। আমরা তাকে বাঁচানোর চেষ্টা করছি।

টুইটারে ইয়ারমিশ লিখেছেন, ‘অ্যালেক্সেইকে বিষাক্ত কিছু প্রয়োগ করা হয়েছে। এখন তিনি আইসিইউতে। আমরা মনে করছি তার চায়ের সঙ্গে বিষাক্ত কিছু মেশানো হয়েছে। সকালে শুধু তিনি চা খেয়েছিলেন। গরম পানীয়র সঙ্গে দ্রুত বিষ মিশে গেছে বলছে ডাক্তাররা।’

ইয়ারমিশ বলেছেন, বিমানে হঠাৎ করে ঘামতে শুরু করেন নাভালনি এবং মনোযোগ অন্যদিকে সরাতে তাকে তার সঙ্গে কথা বলতে বলেন। তারপর বাথরুমে গিয়েই জ্ঞান হারান এ নেতা।

ইয়ারমিশ বলেছেন, অ্যালেক্সেইর জ্ঞান এখনও ফেরেনি। ভেন্টিলেটরে রাখা হয়েছে তাকে। পুলিশকে ডাকা হয়েছে হাসপাতালে।

এর আগে তাকে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছিল। ২০১১ সালের সাধারণ নির্বাচনে পুতিনের বিরুদ্ধে ভোট কারচুপির অভিযোগ এনে প্রতিবাদ করায় গ্রেপ্তার হন তিনি এবং ১৫ দিন জেল খাটেন।

২০১৭ সালে তার ওপর অ্যান্টিসেপটিক রঙ দিয়ে রাসায়নিক হামলা চালালে গুরুতর আহত হন নাভালনি।