বিরোধীদের ওপর নজরদারি চালাতেন ট্রাম্প

ক্ষমতায় থাকতে বিরোধী ডেমোক্র্যাট আইনপ্রণেতাদের ওপর ব্যাপক নজরদারি চালিয়েছিলেন যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে রাশিয়ার সঙ্গে সম্ভাব্য সংযোগ প্রমাণ করার লক্ষ্যে সরকারের বিচার বিভাগকে দিয়ে গোপনে এই নজরদারি করিয়েছিলেন তিনি। এমনকি রাজনৈতিক শত্রুদের ঘায়েল করতে তাদের ফোনে আড়িপাতা হয়েছিল।

সম্প্রতি এ খবর প্রকাশ হয়ে যাওয়ার পর ট্রাম্পের বিরুদ্ধে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ওইসব ডেমোক্র্যাট আইনপ্রণেতারা। এই নজরদারিকে ‘ক্ষমতার নজিরবিহীন অপব্যবহার’ বলেও অভিহিত করেছেন তারা। খবর এএফপির।

২০১৭ সালে প্রেসিডেন্ট হিসাবে ট্রাম্পের দায়িত্ব নেওয়ার শুরুতেই রাশিয়ার সঙ্গে তার নির্বাচনি প্রচারণা দলের যোগসাজশ থাকার অভিযোগ ওঠে। এমনকি এমনও অভিযোগ ছিল, নির্বাচনে কারচুপি করে ট্রাম্পকে ক্ষমতায় বসিয়েছেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এ ব্যাপারে তদন্তের জেরে একের পর এক তথ্য-প্রমাণও সামনে আসতে শুরু করে। বেকায়দায় পড়ে যান ট্রাম্প। বিচার বিভাগকে দিয়ে শুরু করেন নজরদারি। ডেমোক্র্যাট আইনপ্রণেতাদের ব্যাপারে তথ্য জানতে মার্কিন প্রযুক্তি কোম্পানি অ্যাপলের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছিল। সম্প্রতি সেই তথ্য জানিয়ে দিয়েছে কোম্পানি।

ডেমোক্র্যাট নেতা অ্যাডাম শিফ ও এরিক সলওয়েল বলেছেন, সম্প্রতি অ্যাপলের পক্ষ থেকে তাদেরকে জানানো হয়েছে, ২০১৭ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন সময়ে ডেমোক্র্যাট নেতাদের এমনকি তাদের পরিবার ও সন্তানদের ফোন যোগাযোগের (কল রেকর্ড) সব তথ্য হস্তান্তর করতে কোম্পানিকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল।