বাউফলে যুবলীগ নেতাকে হাতুড়ি পেটা করল ৩ যুবক

পটুয়াখালীর বাউফলে আল মুরাদ (২৫) নামের এক যুবলীগ নেতাকে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করার ঘটনায় তিন যুবককে আটক করা হয়েছে। সোমবার (৩১ আগস্ট) আদালতের মাধ্যমে তাদের কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

রোববার (৩০ আগস্ট) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার কনকদিয়া বাজারে এ ঘটনাটি ঘটেছে। গুরতর আহত অবস্থায় মুরাদকে বাউফল স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

এ ঘটনার সময় ৩ জনকে আটক করে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেছে এলাকাবাসী।

জানা গেছে, উপজেলার মদনপুরা ইউনিয়ন যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আল মুরাদের কনকদিয়া বাজারে ক্ষুদ্র ব্যবসা রয়েছে।

 

বেলা ১১ টার দিকে ৪টি মোটরসাইকেল নিয়ে কয়েকজন সন্ত্রাসী এসে মুরাদকে তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে জোরপূর্বক বের করে এনে এলোপাতাড়িভাবে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে জখম করে। মুরাদকে বাঁচাতে গিয়ে লিটন মাস্টার ও হাসান সর্দারসহ ৫ জন আহত হন।

ঘটনার সময় মোস্তাকিন, রাজিব ও মোয়াজ্জেম নামের ৩ সন্ত্রাসীকে আটক করে এলাকাবাসী। পরে তাদেরকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে।

আহত যুবলীগ নেতা আল মুরাদের স্ত্রী পপি আক্তার বলেন, স্থানীয় জাহাঙ্গীর সর্দার ও লতিফ খানের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে জমি নিয়ে বিরোধ চলছে তাদের। ওই বিরোধের জের ধরে জাহাঙ্গীর সর্দার ভাড়াটে সন্ত্রাসী এনে মুরাদকে হত্যার চেষ্টা চালায়।

অবশ্য জাহাঙ্গীর সর্দার এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি এ ধরনের ঘটনার সঙ্গে জড়িত নই।

বাউফল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকতা- ওসি মোস্তাফিজুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন, এ ব্যাপারে থানায় একটি মামলা হয়েছে। আটক ৩ জনকে গ্রেফতার দেখানোর পর আদালতে তোলা হয়।