বাইডেনের প্রথম মেয়াদেই প্রেসিডেন্ট হতে পারেন কমলা

নির্বাচনে জয়ী হলে ডেমোক্রেটিক দলের প্রার্থী জো বাইডেন হবেন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে সবচেয়ে প্রবীণ প্রেসিডেন্ট। তিনি প্রেসিডেন্ট হলে চার বছর ক্ষমতার মেয়াদ শেষ করতে পারবেন কিনা তা নিয়ে জল্পনা তৈরি হয়েছে।

এক জনমত জরিপ থেকেই সেই জল্পনা শুরু। বলা হচ্ছে, ক্ষমতার প্রথম মেয়াদও পূর্ণ করতে পারবেন না তিনি।

সোমবার রাসমুসান নিউজের ওই জরিপ বিশ্লেষণ করে জানিয়েছে, আসন্ন ৩ নভেম্বরের নির্বাচনের পরে বাইডেনের বয়স ৭৮ বছর পূর্ণ হবে।

ক্ষমতার প্রথম চার বছর মেয়াদ শেষ করলে বয়স হবে ৮২ বছর। বয়সের ভারে ৮০ বছর পেরিয়ে তিনি ক্ষমতায় থাকতে পারবেন কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়েছে।

তবে জরিপে উঠে আসছে- তার প্রথম মেয়াদ শেষ করতে পারবেন না। সেক্ষেত্রে যুক্তরাষ্ট্রের সাংবিধানিক নিয়মানুযায়ী ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস (৫৫) হবেন পরবর্তী প্রেসিডেন্ট।

গত ১১ আগস্ট জরিপ প্রকাশ করেছে রাসমুসান নিউজ। জরিপে অংশ নেয়া ৫৯ শতাংশ ভোটার মনে করেন, বাইডেনের রানিং মেট ইন্ডিয়ান-আমেরিকান বংশোদ্ভূত নারী কমলাই হতে পারেন পরবর্তী প্রেসিডেন্ট।

৩৯ শতাংশ ভোটারের ধারণা, প্রথম মেয়াদ শেষ করতে পারবেন না বাইডেন। এমনকি দলের মধ্যেও এ নিয়ে বিভক্তি রয়েছে।

ডেমোক্রেটিক দলের ৪৯ শতাংশ ভোটার মনে করেন, বাইডেনের উত্তরসূরি হতে পারেন ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা। ৭৩ শতাংশ রিপাবলিকান ভোটার ও ৫৭ শতাংশ স্বতন্ত্র ভোটারও মনে করেন, ক্ষমতার প্রথম মেয়াদ শেষ করতে পারবেন না বাইডেন। ভোটারদের ধারণা, তার আগেই তিনি বয়সের কারণে অসুস্থ হয়ে পড়তে পারেন।

আগামী ২০ নভেম্বর ৭৮ বছর পূর্ণ হবে বাইডেনের। গুঞ্জন ছড়িয়েছে যে, বয়সের ভারে ২০২৪ সাল পর্যন্ত ক্ষমতার মেয়াদ পূর্ণ করতে পারবেন না তিনি।

এর আগে ক্ষমতা ছেড়ে দিলে প্রেসিডেন্ট হবেন কমলা। ক্যালিফোর্নিয়ার এ সিনেটর নির্বাচনে জয়ী হলে আমেরিকার আড়াইশ’ বছরের ইতিহাসে প্রথম কোনো কৃষ্ণাঙ্গ নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট হবেন, গড়বেন ইতিহাস।

আমেরিকার ইতিহাসে এ পর্যন্ত মাত্র দু’জন নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট পদে লড়েছেন। ২০০৮ সালে রিপাবলিকান পার্টির হয়ে সারা পলিন, ১৯৮৪ সালে ডেমোক্রেটিক পার্টির জেরালডিন ফেরারো। তাদের কেউই নির্বাচিত হতে পারেননি। আবার বাইডেন তার মেয়াদ শেষ হওয়ার আগে ক্ষমতা ছেড়ে দিলে প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট পাবে যুক্তরাষ্ট্র। এটা আরও বড় রেকর্ড।

এদিকে ১৭ আগস্ট ডেমোক্রেটিক দলের কনভেনশন শুরুর আগে বাইডেন-কমলা জুটি নিয়ে পূর্বাভাস দিয়েছেন ফক্স নিউজের দাতা নিউট গিংরিস।

তার ধারণা- প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে এ জুটির টিকিটের ‘পতন’ ঘটতে পারে। দলীয় জাতীয় সম্মেলনে কমলা হ্যারিস প্রার্থিতা থেকে ছিটকে পড়তে পারেন। এ পূর্বাভাস দিতে গিয়ে গিংরিস ১৯৭২ সালের নির্বাচনের উদাহরণ টেনেছেন।

ওই নির্বাচনে ডেমোক্রেটিক দলের প্রেসিডেন্ট প্রার্থী জর্জ ম্যাকগভার্ন তার রানিং মেট হিসেবে সার্জেন্ট শ্রিভারের (সাবেক প্রেসিডেন্ট জন এফ কেনেডির ভগ্নিপতি) নাম ঘোষণা করেছিলেন। কিন্তু জাতীয় সম্মেলনে দলীয় প্রতিনিধিরা তাকে পছন্দ করেননি।

পরবর্তী সময় মিসৌরির সিনেটর থমাস এগলেটনকে মনোনয়ন দেন ম্যাকগভার্ন। যদিও নির্বাচনে রিপাবলিকান প্রার্থী রিচার্ড নিক্সনের কাছে ধরাশায়ী হয়েছিলেন তিনি।