বঙ্গবন্ধু হত্যা : দ্রুত কমিশন গঠনের সুপারিশ

১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এবং তার পরিবারের ১৭ জন সদস্যকে নির্মমভাবে হত্যার সঙ্গে জড়িতদের বিচারের জন্য একটি জাতীয় কমিশন গঠনের যে ঘোষণা দিয়েছে সরকার তা দ্রুত শেষ করার সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি।

সোমবার (৩১ আগস্ট) সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ১২তম বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়। বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি আবদুল মতিন খসরু সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, পঁচাত্তরের ১৫ আগস্টের সেই নৃশংস হত্যার পেছনে কারা ছিলেন। হত্যায় অংশগ্রহণকারী ছাড়াও মদদদাতা ও ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজতে জাতীয় তদন্ত কমিশনের ঘোষণা দিয়েছে সরকার। কিন্তু এটা যেন আমলাতন্ত্রের বেড়াজালে আটকা না পড়ে। দ্রুত কমিশন গঠন করে তদন্ত করার সুপারিশ করেছে কমিটি।

জানা যায়, বৈঠকের শুরুতেই সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদতবার্ষিকী উপলক্ষে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়। এরপর একাদশ জাতীয় সংসদের সদস্য, সাবেক মন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য সাহারা খাতুন এবং লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিব নরেন দাস স্মরণেও এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।

বৈঠকে কমিটির সদস্য আনিসুল হক (আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী), মোস্তাফিজুর রহমান, মো. শামসুল হক টুকু, মো. শহীদুজ্জামান সরকার, শামীম হায়দার পাটোয়ারী এবং গ্লোরিয়া ঝর্ণা সরকার অংশগ্রহণ করেন।