ফ্লোরিডায় ভবনধস : ৫ জনের দেহ উদ্ধার, নিখোঁজ ১৫৬

যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা রাজ্যের মিয়ামির কাছে ধসে পড়া ১২ তলা ভবনের ধ্বংসস্তূপের ভেতর থেকে মোট পাঁচজনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।
ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, কংক্রিট ও ধাতব ধ্বংসাবশেষের ভেতরে ব্যাপক আগুন ও ধোঁয়ার মধ্যে আটকেপড়াদের উদ্ধার করতে গিয়ে নতুন করে একজনকে খুঁজে পান উদ্ধারকারীরা। এতে করে মৃতের সংখ্যা পাঁচজনে দাঁড়িয়েছে।

মিয়ামি-ডেডের মেয়র ড্যানিয়েলা লেভাইন কাভা সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে বলেন, মোট পাঁচজনের মরদেহের সন্ধান পাওয়ার জেরে নিখোঁজের সংখ্যা ১৫৬তে নেমে এসেছে।

তিনি আরো বলেছেন, এরই মধ্যে তিনজনের দেহ শনাক্ত করা হয়েছে। সরকারি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন যে তারা যে দেহাবশেষের সন্ধান পেয়েছেন, সেগুলো মেডিক্যাল পরীক্ষকের কাছে প্রেরণ করা হচ্ছে এবং তাদের শনাক্ত করার জন্য পরিবারের সদস্যদের কাছ থেকে ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করছেন।

স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার অঙ্গরাজ্যটির মিয়ামির পার্শ্ববর্তী সার্ফসাইড এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। যে ভবনটি ধসে গেছে সেটি আবাসিক ভবন; যারা নিখোঁজ রয়েছেন তাদের মধ্যে কমপক্ষে ১৮ জন লাতিন আমেরিকার বিভিন্ন দেশের নাগরিক। বিবিসি বলছে, ৪০ বছরের এই পুরনো ভবনটি কেন ধসে পড়েছে তা জানা যায়নি। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধান করা হচ্ছে।

দুর্ঘটনার পর মিয়ামি-ডেড কাউন্টির ডেপুটি কমিশনার সেলি হেইম্যান বলেন, এই ভবনে অনেকেই স্থায়ীভাবে বসবাস করতেন। আবার কেউ কেউ শীতের সময় এসে সেখানে থাকতেন।ভবনটি নির্মাণ করা হয়েছিল ১৯৮০ সালে। এতে ১৩০টি ইউনিট ছিল। এই ধসের কারণে অর্ধেক ইউনিট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সূত্র : বিবিসি।