প্রণবের অবস্থার অবনতি

‘বাবা এখন স্থিতিশীল’—গতকাল বুধবার সকালেই এক টুইটে জানিয়েছিলেন ভারতের সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের ছেলে অভিজিৎ মুখোপাধ্যায়। কিন্তু দুপুরেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এক বিবৃতিতে জানাল, তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে; ফুসফুসে সংক্রমণের লক্ষণ ধরা পড়েছে। তিনি বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন।

দিল্লির আর্মি হসপিটাল রিসার্চ অ্যান্ড রেফারেলে আইসিইউয়ে ভেন্টিলেটরে রেখেই তাঁর চিকিৎসা চলছে।বাংলাদেশের অকৃত্রিম বন্ধু এই বরেণ্য রাজনীতিক ২০১২ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ভারতের রাষ্ট্রপতি ছিলেন। গত বছর তিনি ভারতের সর্বোচ্চ বেসামরিক খেতাব ‘ভারত রত্নে’ ভূষিত হন।

গত ৯ আগস্ট রাতে দিল্লির বাসভবনের শৌচাগারে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাত পান ৮৪ বছর বয়সী প্রণব। পরের দিন সকাল থেকে তাঁর স্নায়ুঘটিত সমস্যা দেখা দেয়; বাঁ হাত নাড়াচাড়া করতে পারছিলেন না তিনি। পরদিন চিকিৎসকের পরামর্শে হাসপাতালে ভর্তি করা হয় তাঁকে। এমআরআই স্ক্যানে মাথার ভেতরে জমাট বাঁধা রক্তের অস্তিত্ব ধরা পড়ে, যা আঘাতের ফলেই হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন চিকিৎসকরা। জরুরি ভিত্তিতে অস্ত্রোপচার করে জমাট বাঁধা রক্ত অপসারণ করা হয়।

অস্ত্রোপচারের প্রস্তুতি পর্বে প্রয়োজনীয় স্বাস্থ্য পরীক্ষা করতে গিয়ে তাঁর দেহে করোনাভাইরাসের অস্তিত্ব ধরা পড়ে। অস্ত্রোপচারের পর অবস্থার অবনতি হওয়ার পর বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে তৈরি মেডিক্যাল বোর্ডের অধীনে তাঁকে নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়। তার পর থেকে তিনি সেখানেই আছেন।