প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তেজনার মধ্যেই চীনা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে রাজনাথের সাক্ষাৎ

লাদাখের প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখায় উত্তেজনার মধ্যে চীনা প্রতিরক্ষামন্ত্রী ওয়েই ফংহ’র সঙ্গে বৈঠক করেছেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং। তাদের মধ্যে দুই ঘণ্টারও বেশি সময় ধরে বৈঠক হয়েছে।

গতকাল (শুক্রবার) দিবাগত রাত সাড়ে ৯ টা থেকে রাশিয়ার মস্কো শহরে ওই বৈঠক শুরু হয়। দুই ঘণ্টা ২০ মিনিট ধরে উভয়পক্ষের মধ্যে আলোচনা চলে। রাজনাথের সঙ্গে ওই বৈঠকে ভারতের প্রতিরক্ষাসচিব অজয় কুমার এবং রাশিয়ায় ভারতের রাষ্ট্রদূত ডি বি ভেঙ্কটেশ বর্মাও উপস্থিত ছিলেন।

সাংহাই কর্পোরেশন (এসসিও) সম্মেলন উপলক্ষে তিন দিনের সফরে রাশিয়া সফরে গেছেন রাজনাথ। ওই সম্মেলনে চীনের প্রতিরক্ষামন্ত্রীও উপস্থিত হয়েছেন।

চীনা প্রতিরক্ষামন্ত্রীর সঙ্গে  বৈঠকের আগে ‘এসসিও’ সম্মেলনে বক্তব্য রাখার সময়ে ভারতের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ সিং বলেন, ‘বিশ্বাসের পরিবেশ, অনাগ্রাসন, পরস্পরের প্রতি সংবেদনশীলতা এবং শান্তিপূর্ণভাবে মতপার্থক্য নিরসনের ওপরেই আঞ্চলিক শান্তি ও স্থিতিশীলতা নির্ভর করে।’

দু’দেশের প্রতিরক্ষা মন্ত্রীদের বৈঠক এমন এক সময় অনুষ্ঠিত হল যখন পূর্ব-লাদাখের অনেক জায়গায় উত্তেজনা অব্যাহত রয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যমে বলা হয়েছে, পাঁচ দিন আগে চীন প্যাগং লেকের দক্ষিণ উপকূলে অনুপ্রবেশের চেষ্টা করেছিল, যা ভারতীয় সেনা কর্তৃক ব্যর্থ করে দেওয়া হয়। তারপর থেকে দু’দেশেই উত্তেজনা বেড়েছে। তবে উভয়পক্ষই কূটনৈতিক ও সামরিকস্তরে আলোচনার মাধ্যমে সীমান্ত বিরোধ দূর করার চেষ্টা চালাচ্ছে।

গত মে মাসে লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারতীয় ও চীনা সেনার মধ্যে প্রাণঘাতী সংঘর্ষের পরে এই প্রথম দু’দেশের শীর্ষস্থানীয় নেতাদের মধ্যে মুখোমুখি বৈঠক হল।

এরআগে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর এবং জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত ডোভাল আলাদা আলাদা ভাবে ফোনে কথা বলেছিলেন চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই’র সঙ্গে। সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা পর্যায়ে বৈঠক অবশ্য প্রায়ই অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্করও কিছুদিনের মধ্যে রাশিয়া সফরে যাবেন। তিনি ‘এসসিও’র পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সম্মেলনে অংশ নেবেন। চীন ও ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এখানে বৈঠক করতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। বৃহস্পতিবার ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় অবশ্য বলেছে সভার সিদ্ধান্ত এখনও হয়নি।