‘পুতিনের নির্দেশেই বিষ দেয়া হয় রুশ নেতা নাভালনিকে’

রাশিয়ার বিরোধী নেতা ও প্রেসিডেন্ট পুতিনের কট্টর সমালোচক আলেক্সাই নাভালনিকে বিষাক্ত রাসায়নিক নার্ভ এজেন্ট ‘নভিচক’ প্রয়োগের প্রমাণ পেয়েছে জার্মানি।

পুতিনের নির্দেশেই রুশ বিরোধী নেতাকে বিষ দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করছেন তার সমর্থকরা, যদিও এই অভিযোগ প্রত্যাখ্যান করেছে ক্রেমলিন। একই সঙ্গে তার চিকিৎসার সকল তথ্য মস্কোর কাছে হস্তান্তরের আহ্বান জানিয়েছেন রুশ মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা।

সামরিক পরীক্ষাগারে টক্সিকোলজি পরীক্ষা করে নাভালনির দেহে নভিচক গ্রুপের এজেন্টের উপস্থিতির ‘স্পষ্ট প্রমাণ’ পাওয়া গেছে।

এ বিষয়ে জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেল বলেছেন, নাভালনি হত্যাচেষ্টার শিকার হয়েছেন এবং এমন ঘটনার জন্য রাশিয়ার সুস্পষ্ট উত্তরের অপেক্ষায় থাকবে বিশ্ব।

পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে আলোচনা করতে চ্যান্সেলর জ্যেষ্ঠ মন্ত্রীদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন বলে বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। অনুসন্ধানগুলোর বিষয়ে ইইউ ও ন্যাটোকে জানাবে বলেও উল্লেখ করেছেন জার্মান চ্যান্সেলর।

নাভালনির স্ত্রী ইউলিয়া ও জার্মানিতে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূতকেও এই তথ্য সম্পর্কে অবহিত করা হবে।

গত মাসে উড়োজাহাজে করে সাইবেরিয়ার টমস্ক থেকে মস্কো ফেরার পথে অসুস্থ হয়ে পড়েন আলেক্সাই নাভালনি। হাসপাতালে ভর্তির পর থেকেই তিনি কোমায় আছেন। গুরুতর অবস্থায় চিকিৎসার জন্য নাভালনিকে সাইবেরিয়া থেকে জার্মানিতে নেওয়া হয়।

‘নার্ভ এজেন্ট’ কী?

তৎকালীন সোভিয়েত ইউনিয়ন ও রাশিয়া ১৯৭০ থেকে ১৯৮০ এর দশকে রাসায়নিক অস্ত্রের সিরিজ এই নার্ভ এজেন্টের আবিষ্কার করে। কিছু নভিচক এজেন্ট তরল হলেও এর অনেকগুলোই কঠিন আকারে আছে বলে ধারণা করা হয়। এটিকে পাউডার করে ছড়িয়ে দেয়া যেতে পারে।

নভিচক অন্যান্য রাসায়নিক অস্ত্রের তুলনায় অনেক বেশি বিষাক্ত এবং কার্যকরী। ৩০ সেকেন্ড থেকে দুই মিনিটের মধ্যে কার্যকর হতে শুরু করে। ধীরে ধীরে একজন সুস্থ মানুষকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়।

২০১৮ সালেও সাবেক রুশ গুপ্তচর সের্গেই স্ক্রিপাল ও তার মেয়েকে যুক্তরাজ্যে নভিচক নার্ভ এজেন্ট প্রয়োগ করা হয়েছিল। এ ঘটনার জন্য রাশিয়াকেই দায়ী করা হয়। বিষ দিয়ে হত্যা চেষ্টার ঘটনায় বিশ্বজুড়ে তোলপাড় শুরু হয়। যদিও সেবারের ঘটনায়ও অস্বীকার করে মস্কো।