পশ্চিমবঙ্গের ত্রিপুরায় তৃণমূল নেতা অভিষেকের গাড়িতে আক্রমণ

ভারতের বিজেপিশাসিত ত্রিপুরায় পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল নেতা অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের গাড়িতে বিজেপি আক্রমণ করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বিজেপি অবশ্য ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছে।

আজ (সোমবার) তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় এমপি এ প্রসঙ্গে ত্রিপুরার মুখ্যমন্ত্রী বিপ্লব দেবের সাম্প্রতিক মন্তব্যকে উল্লেখ করে বিজেপি’র সমালোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘ক’দিন আগেই বলেছিলেন ‘অতিথি দেব ভবঃ (অতিথিকে দেবতা জ্ঞান কর)। এখন হামলা। ত্রিপুরার মানুষ এর বিচার করবে। বিজেপি নেতারা বাংলা এসে গলা ফাটাচ্ছেন গণতন্ত্র নেই বলে। কিন্তু তারা আগে ত্রিপুরায় এসে দেখুন, কোথাও গণতন্ত্র নেই। তারপরে বাংলা নিয়ে কথা বলবেন।

আজ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় রাজনৈতিক কর্মসূচিতে ত্রিপুরা সফরে গেলে তার গাড়ির ওপরে লাঠির আঘাত দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এ সময়ে বিজেপি’র পতাকা হাতে দাঁড়িয়ে থাকা মানুষজন অভিষেকের বিরুদ্ধে ‘গো-ব্যাক’ স্লোগান দেন।

পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি’র পক্ষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সাফাই দিয়ে বলা হয়েছে, ‘বাংলায় বিরোধীদলের নেতাদের সঙ্গে এমন আচরণ রোজকার ব্যাপার। এখন দেখা যাচ্ছে, তৃণমূলের হিংস্র কর্মীদের ত্রিপুরায় পাঠানো হয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গের বিজেপি’র রাজ্য সহসভাপতি জয়প্রকাশ মজুমদার বলেন, ‘পতাকা তো রাস্তায় পাওয়া যায়। পতাকা নিয়ে হামলা হয়েছে কি না জানি না। কারা হামলা করেছে, পতাকা নিয়ে হামলা করেছে কি না তা খতিয়ে দেখতে হবে। এই ঘটনায় বিজেপি’র কোনও হাত আছে বলে আমরা মনে করি না। সংবাদের শিরোনামে আসার জন্য এটা সম্পূর্ণভাবে তৃণমূলের অপচেষ্টা।

বিজেপিশাসিত ত্রিপুরায় ২০২৩ সালের আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনকে পাখির চোখ করেছে তৃণমূল। সেই লক্ষ্যেই দলটির পক্ষ থেকে ত্রিপুরায় রাজনৈতিক জমি তৈরি করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

সূত্রঃ পার্সটুডে