পর্নকাণ্ডে জামিন পেলেন রাজ কুন্দ্রা

জুলাই মাসে পর্ন ছবি তৈরির অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছিল শিল্পা শেঠির স্বামী রাজ কুন্দ্রা। তারপর থেকে বারবার জামিনের আবেদন করলেও তা না-মঞ্জুর হয়েছে। অবশেষে সোমবার জামিন পেলেন রাজ ও রাজের আইটি কর্মী রেয়ান থ্রোপ।

সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, পর্নোগ্রাফি কাণ্ডে ৫০ হাজার টাকার বন্ডে জামিন পেয়েছেন তিনি। জানা গিয়েছে, রাজ কুন্দ্রা ছাড়াও রেয়ান থ্রোপ জামিন মঞ্জুর করেছে মুম্বইয়ের আদালত। প্রায় দু’ মাস পর জেল থেকে ছাড়া পেলেন তিনি। গত বৃহস্পতিবার পর্ন ছবি তৈরির মামলায় রাজের বিরুদ্ধে এক হাজার ৪০০ পৃষ্ঠার চার্জশিট জমা দিয়েছিল মুম্বই পুলিশ। এরপরেই গত শনিবার রাজ পুনরায় জামিনের জন্য আবেদন করেন। তিনি আদালতকে জানিয়েছিলেন, তদন্ত শেষ হয়ে গিয়েছে এবং পুলিশ চার্জশিটও পেশ করে ফেলেছে। অর্থাৎ প্রমাণ লোপাটের যুক্তি আর খাটে না, এহেন যুক্তিই নাকি দিয়েছিলেন রাজ।

সূত্রের খবর, ব্যবসায়ীর দাবি তাকে ফাঁসানো হয়েছে। তিনি পর্ন ছবির শ্যুটিং করাতেন এবং মোবাইল অ্যাপ মারফত স্ট্রিমিংয়ে তার কোনও যোগ ছিল এই ধরনের কোনও প্রমাণও পুলিশ পায়নি। এমনই দাবি রাজের। চার্জশিটে পুলিশ উল্লেখ করেছে যে রাজ অপরাধীদের সুবিধা পাইয়ে দিয়েছিলেন।

রাজের জামিনের আবেদনের বিপক্ষে লাগাতার প্রশ্ন করে সরকারি পক্ষ। এই মামলার তদন্তকারী অফিসার কিরণ বিদ্ভে সে সময় আদালতকে জানিয়েছিলেন, এখনও ব্যবসায়ীর একাধিক বয়ান রেকর্ড করা বাকি রয়েছে। তাকে প্রভাবশালী ব্যক্তি বলে পুলিশ আধিকারিক বলেন, ‘জামিন দিলে, প্রমাণ লোপাটের চেষ্টা করতে পারেন ব্যবসায়ী।’ যদিও রাজ আবারও জামিনের আবেদন করে দাবি করে বলছিলেন, ‘আমি সবরকমভাবে সাহায্য করছি, এরপরেও আমাকে আটকে রাখার কোনও মানে হয় না।

গত জুলাইতেই মুম্বাই হাইকোর্টে জামিনের আবেদন করে বড়সড় ধাক্কা খেয়েছিলেন রাজ কুন্দ্রা। মুম্বাই হাইকোর্ট জানিয়ে দিয়েছিল, ব্যবসায়ীকে কোনওভাবেই অন্তর্বতী জামিন দেওয়া যাবে না।