পরমাণু স্থাপনায় অগ্নিকাণ্ডকে ভয়াবহ হামলার তকমা দিল ইরান

গত মাসে ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের নানতাজ পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণ ও আগুন লাগার ঘটনাকে সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর নাশকতা ছিল বলে স্বীকার করেছে দেশটি। রবিবার (২৩ আগস্ট) তেহরানের পারমাণবিক শক্তি সংস্থার মুখপাত্র বেহরুজ কামালবন্দি রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে এ কথা জানিয়েছেন।

বেহরুজ বলেন, নানতাজ পরমাণু স্থাপনায় বিস্ফোরণ ছিল সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর এক নাশকতার ফল। আমাদের নিরাপত্তা কর্তৃপক্ষ যথাসময়ে বিস্ফোরণের কারণ প্রকাশ করবে।

গত জুলাইয়ে ইরানের শীর্ষ নিরাপত্তা কর্মকর্তারা বলেছিলেন, নানতাজে অগ্নিকাণ্ডের কারণ খুঁজে পাওয়া গেছে। তবে তা পরে জানানো হবে।

নানতাজ শহরের এ ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ স্থাপনাটির বেশিরভাগ অংশই মাটির নিচে অবস্থিত। জাতিসংঘের আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি সংস্থার (আইএইএ) পর্যবেক্ষণে থাকা ইরানের বেশ কয়েকটি স্থাপনার মধ্যে এটি অন্যতম।

 

ইরানি কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, আগুনে পরমাণু স্থাপনাটির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এতে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের গতি বাধাগ্রস্ত হতে পারে।

 

বিশ্লেষকদের মতে, সাইবার হামলার কারণে স্থাপনাটিতে আগুন লাগতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। যদিও এর পেছনে ইসরায়েল-যুক্তরাষ্ট্রের মতো শত্রুভাবাপন্ন দেশগুলোর হাত থাকতে পারে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে ইরানি গণমাধ্যমগুলো। তবে এ ধরনের কিছু হলে তার কঠোর প্রতিশোধ নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছে তেহরান।

সূত্র : আরব নিউজ