পরমাণু চুল্লির ফুয়েল প্লেট তৈরির জন্য ইউরেনিয়াম মেটাল সমৃদ্ধকরণ করা হচ্ছে

ইসলামি প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সাঈদ খাতিবজাদে বলেছেন, ২০১৫ সালে সই হওয়া পরমাণু সমঝোতা এবং পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ চুক্তি বা এনপিটি মেনেই তেহরান তার পরমাণু কর্মসূচি পরিচালনা করছে।

গতকাল (মঙ্গলবার) এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন সাঈদ খাতিবজাদে। তিনি বলেন, ইরানের পরমাণু স্থাপনাগুলোর ওপর আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা বা আইএইএ’র নজরদারি রয়েছে এবং পরমাণু সমঝোতা মেনেই তেহরান তার পরমাণু কর্মসূচিতে সীমাবদ্ধতা এনেছে।

কিন্তু ২০১৮ সালে আমেরিকা যখন চরমভাবে সমঝোতা লংঘন করে তা থেকে বেরিয়ে গেছে তখন শুধুমাত্র ইরান পরমাণু কর্মসূচির ক্ষেত্রে কিছু কিছু সীমাবদ্ধতা বাতিল করেছে। তবে এগুলো সবই করা হয়েছে পরমাণু সমঝোতার ধারার আলোকে।

২০১৫ সালে সই হওয়া পরমাণু সমঝোতা বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে ইউরোপের দেশগুলো চরমভাবে গড়িমসে করেছে বলেও উল্লেখ করেন সাঈদ খাতিবজাদে।

আইএইএ গত সোমবার এক রিপোর্টে জানিয়েছে, ইউরেনিয়াম মেটাল সমৃদ্ধকরণের ক্ষেত্রে ইরান উন্নতি লাভ করেছে। এরপরই সাঈদ খাতিবজাদে গতকাল এসব কথা বললেন। তিনি জানান, পরমাণু চুল্লির ফুয়েল প্লেট তৈরি করার জন্য ইরান এই পদক্ষেপ নিয়েছে।

সূত্রঃ পার্সটুডে