নির্বাচন করবেন সৌরভ গাঙ্গুলী!

করোনা মহামারির মধ্যেই নির্বাচনমুখী হচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের শাসক এবং বিরোধীদল। আসছে বিধানসভা নির্বাচনে পশ্চিমবঙ্গে সৌরভ গাঙ্গুলির বিজেপির টিকিট পাওয়ার গুঞ্জন এখন আলোচনায়।

২০১১ সালে বামফ্রন্ট সরকারকে সরিয়ে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার মধ্যদিয়ে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে ক্ষমতায় আসে মমতার সরকার। টানা দ্বিতীয়বারেও মমতাময় ছিল রাজ্যটি। পরপর দু’বার ক্ষমতায় থাকার পর বেশকিছু ক্ষেত্রে সমালোচিত হচ্ছেন তৃণমূল নেত্রী ও মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এরমধ্যে যেমন রয়েছে করোনাকালীন চিকিৎসা ব্যবস্থা এবং চিকিৎসা কিট নিয়ে দুর্নীতি, তেমনি রয়েছে মে মাসে আঘাত হানা আম্পান পরবর্তী ত্রাণ-ব্যবস্থাপনার ব্যর্থতা নিয়েও।

শাসক দলের এই ব্যর্থতার সুযোগ নিতে মরিয়া রাজ্যের বিরোধী শিবির। এ অবস্থায় বিজেপির দাবি, আগামী বছরের নির্বাচনে তারা তৃণমূলকে হারিয়ে ক্ষমতায় বসবে। সেক্ষেত্রে সৌরভ গাঙ্গুলি, দিলীপ ঘোষ কিংবা মুকুল রায় মুখ্যমন্ত্রী হতে পারেন বলে গুঞ্জন উঠেছে। এরমধ্যেই মেঘালয়ের সাবেক রাজ্যপাল তথাগত রায় রোববার রাতে কলকাতায় ফিরে বিজেপির রাজনীতিতে সক্রিয় হওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন।

 

তথাগত রায় বলেন, বিজেপির ভবিষ্যৎ অত্যন্ত উজ্জ্বল। আগামী ২০২১ সালে পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলকে হটিয়ে সরকার গঠন করবে বিজেপি।

বিজেপির রাজ্য পর্যবেক্ষক কৈলাশ বিজয়বর্গীয় বলেন, সবাই মিলে নির্বাচনে লড়াই করা হবে। সেই সঙ্গে নির্বাচনে জিতেই আমাদের বিধায়করা ঠিক করবেন কে মুখ্যমন্ত্রী হবে। এটাই আমাদের গণতন্ত্র।

এদিকে করোনা মহামারীর মধ্যে ভোট অনুষ্ঠানের ক্ষেত্রে বিধি তৈরি করে ১২ পাতার বিজ্ঞপ্তি জারি করেছে দেশটির কেন্দ্রীয় নির্বাচন কমিশন।