নির্বাচনে জনগণের উপস্থিতি ভবিষ্যতে নিষেধাজ্ঞা আরোপের পথ বন্ধ করবে: ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাওয়াদ জারিফ বলেছেন, নির্বাচনে জনগণের উপস্থিতির মধ্যদিয়ে বর্তমান নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের প্রক্রিয়া ত্বরান্বিত হওয়ার পাশাপাশি ভবিষ্যতে নিষেধাজ্ঞা আরোপের পথও বন্ধ হবে।

তিনি আজ (সোমবার) নিজের ইন্সটাগ্রামে একটি ভিডিও প্রকাশ করে বলেছেন, নির্বাচনে জনগণের ব্যাপক উপস্থিতি ইরানি জাতির বিরুদ্ধে অর্থনৈতিক যুদ্ধকে ব্যর্থ করে দেবে। এছাড়া ভবিষ্যতে নতুন করে নিষেধাজ্ঞা আরোপের চিন্তাও মাথা থেকে মুছে ফেলবে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সবাইকে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে বলেন, সুচিন্তিতভাবে ভোটাধিকার প্রয়োগের মাধ্যমে জাতীয় শক্তি ও সামর্থ্যের বিষয়টি নির্ধারিত হবে।

ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নির্বাচনের ভোটারদের উপস্থিতি উগ্রপন্থীদের যেমন হতাশ করবে তেমনি ইহুদিবাদী এবং অর্থনৈতিক সন্ত্রাসবাদীদেরকেও ষড়যন্ত্রও ব্যর্থ করে দেবে।

আগামী ১৮ জুন শুক্রবার ইরানে ত্রয়োদশ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। ইসলামী প্রজাতন্ত্র ইরানের ১ততম প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতার জন্য চূড়ান্তভাবে মনোনীত সাত প্রার্থীরা হলেন, সাইয়্যেদ ইব্রাহিম রায়িসি, মোহসেন রেজায়ি, মোহসেন মেহের আলীজাদে, সাঈদ জালিলি, আলী রেজা যাকানি, আব্দুন নাসের হেম্মাতি ও সাইয়্যেদ আমির হোসেন কাজিজাদে হাশেমি।

সূত্রঃ পার্সটুডে