নিরাপত্তা পরিষদে আবেদন খারিজ, বড় ধাক্কা খেলো যুক্তরাষ্ট্র

ইরানের বিরুদ্ধে সব নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালে যুক্তরাষ্ট্রের আবেদন খারিজ করে দিয়েছে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ।

অন্য দেশগুলো সমর্থন না করায় যুক্তরাষ্ট্রের আবেদন খারিজ করে দেয়া হয়েছে বলে মঙ্গলবার নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠক শেষে জানানো হয়। মিত্রদেশগুলোর এমন আচরণে দৃশ্যত ক্ষুব্ধ যুক্তরাষ্ট্র।

জানিয়েছে, সিদ্ধান্ত জানানোর সময় জাতিসংঘ বলে, জার্মানি, ফ্রান্স, যুক্তরাজ্য কোনো দেশই যুক্তরাষ্ট্রের প্রস্তাব সমর্থন করেনি। এই তিনটি দেশই ২০১৫ সালের চুক্তিতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গি। ফলে এই দেশগুলো সিদ্ধান্তের বিপক্ষে ভোট দিলে প্রস্তাব এমনিতেই খারিজ হয়ে যায়।

গত কয়েক বছরের কূটনীতিতে যুক্তরাজ্যের সঙ্গে ট্রাম্প প্রশাসনের সুসম্পর্ক গড়ে উঠেছে। বরিস জনসনের সঙ্গে ট্রাম্পের বন্ধুত্বও তৈরি হয়েছে। কিন্তু জাতিসংঘে সেই বন্ধুত্বও কাজ করল না।

পরমাণু সমঝোতার ভিত্তিতে চলতি বছরের অক্টোবর মাসে ইরানের ওপর জাতিসংঘের আরোপিত অস্ত্র নিষেধাজ্ঞা উঠে যাবে। আগামী অক্টোবর মাস থেকে বহির্বিশ্বের সঙ্গে সমরাস্ত্র বেচাকেনা করতে পারবে তেহরান।

নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকে ইরানবিরোধী নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের আবেদন প্রত্যাখ্যাত হওয়ার এক প্রতিক্রিয়ায় ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মাদ জাবেদ জারিফ বলেছেন, দিনে দিনে একঘরে হয়ে পড়ছে যুক্তরাষ্ট্র।

তিনি বলেন, একগুঁয়েমির কারণে এই বিশ্ব সংস্থায়ও আমেরিকা আবারও একঘরে এবং অন্যদের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে।

সূত্র: ডয়চে ভেল