নিজেদের সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছে ইরান ও সুইজারল্যান্ড: মন্ত্রী

ইরান সফররত সুইজারল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইগনাজিউ ক্যাসিস বলছেন, তেহরান ও বার্নের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্কের দীর্ঘ ইতিবাস রয়েছে। তিনি আরো বলেছেন, গত একশ বছরে দু’দেশ নিজেদের সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে গেছে।

তিনি গতকাল (রোববার) তেহরানে দু’দেশের মধ্যে কূটনৈতিক সম্পর্ক প্রতিষ্ঠার শতবার্ষিকীর এক অনুষ্ঠানে এ মন্তব্য করেন। তিনি বলেন, বিশেষ করে ইরানের সঙ্গে বৈরী দেশগুলোর মধ্যে সম্পর্ক স্থাপনে সুইজারল্যান্ড গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে।

আমিরকার সঙ্গে ইরানের কূটনৈতিক সম্পর্ক না থাকলেও গত ৪০ বছর ধরে তেহরানে আমেরিকার স্বার্থ দেখাশুনা করেছে সুইজারল্যান্ডের দূতাবাস।

১৮৭৩ সাল থেকে ইরানের সঙ্গে সুইজার‍ল্যান্ডের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিদ্যমান বলে জানান সুইস পররাষ্ট্রমন্ত্রী। তিনি দাবি করেন, ইউরোপের প্রথম দেশ হিসেবে সুইজারল্যান্ড ইরানের সঙ্গে বাণিজ্যিক সম্পর্ক স্থাপন করেছিল।

সুইজার‍ল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইরানের তিনদিনের সফরের শনিবার বার্ন থেকে সরাসরি ইরানের ঐতিহাসিক নগরী ইস্পাহানে পৌঁছান। সেখান থেকে রোববার তেহরানে আসেন এবং ইরানের পার্লামেন্ট স্পিকার মোহাম্মাদ বাকের কলিবফের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন।