ধর্ষণের অভিযোগ আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে মামলা

চাকরি ও বিয়ের প্রলোভনে ধর্ষণের অভিযোগে ঝালকাঠীর কাঠালিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক মনিরের বিরুদ্ধে বরিশালে ধর্ষণ মামলা হয়েছে। ওই উপজেলার ৩ নম্বর ওয়ার্ডের আমুয়া গ্রামের এক যুবতী (২২) বাদী হয়ে মঙ্গলবার দুপুরে বরিশাল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালে এই মামলা দায়ের করেন।

ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু শামীম আজাদ শুনানি শেষে আগামী ৪ অক্টোবর ধার্য তারিখের আগে অভিযোগ তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য কোতয়ালী মডেল থানার ওসিকে নির্দেশ দেন।

মামলায় চেয়ারম্যান মনির ছাড়াও তাকে সহযোগীতার অভিযোগে ওই উপজেলার জাঙ্গালিয়া এলাকার মিঠু সিকদার নামে একজনকে আসামি করা হয়েছে।

মামলায় অভিযোগ করা হয়, বাদী ২০১৭ সালে এইচএসসি পাস করে তৎকালীন ভাইস চেয়ারম্যান এমদাদুল হক মনিরের কাছে চাকরির জন্য গেলে তিনি তাকে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে প্রথমে প্রেম এবং পরে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। পরবর্তীতে কাগজে সাক্ষর নিয়ে বিয়ে হয়েছে দাবী করে বরিশাল নগরীর আগরপুর রোডের একটি ভাড়া বাসায় নিয়ে তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করে সে। সম্প্রতি তাকে স্ত্রী হিসেবে অস্বীকার করে চেয়ারম্যান মনির।

এ ঘটনায় নির্যাতিতা নারী নিজে বাদী হয়ে ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করেন। এই ঘটনার সুষ্ঠু বিচার দাবী করেন তিনি ও তার মা।

ট্রাইব্যুনালের বিচারক আবু শামীম আজাদ মামলাটি আমলে নিয়ে শুনানী শেষে আগামী ৪ অক্টোবরের মধ্যে অভিযোগ তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য কোতয়ালী মডেল থানার ওসি’কে নির্দেশ দেন বলে জানান জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সম্পাদক ও বাদীর আইনজীবী আবুল কালাম আজাদ।

তবে অভিযুক্ত উপজেলা চেয়ারম্যান এমদাদুল হক মনির মুঠোফোনে বলেন, তাকে রাজনৈতিকভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে এই ধরনের মামলা দায়ের করা হয়েছে। তিনি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল।