দেশদ্রোহিতার অভিযোগে ভেনিজুয়েলায় বিরোধী নেতা আটক

ভেনিজুয়েলার বিরোধী নেতা ফ্রেডি গুয়েভারাকে আটক করা হয়েছে। গোয়েন্দা পুলিশ সোমবার তাকে আটক করে। তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাস ও দেশদ্রোহিতার অভিযোগ আনা হবে।

এর্টনি জেনারেল তারেক সাব এক বিবৃতিতে জানান, বিরোধী প্রধান নেতা জুয়ান গুয়াইদোর ঘনিষ্ঠ গুয়েভারাকে বলিভেরিয়ান ন্যাশনাল ইন্টিলিজেন্স সার্ভিস এর সদস্যরা আটক করেছে। কলম্বিয়ান সরকারের সাথে সম্পর্কিত চরমপন্থী ও আধা সামরিক গ্রুপের সাথে যোগসাজশ থাকায় তাতে আটক করা হয়েছে।

কারণ যুক্তরাষ্ট্রের সাথে তাল মিলিয়ে এরাও ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে তীব্রভাবে সমালোচনা করে আসছে। সাব বলেন, তার বিরুদ্ধে সন্ত্রাস, সাংবিধানিক নীতির ওপর আক্রমণ এবং অপরাধ ও দেশদ্রোহিতার যড়যন্ত্রের অভিযোগ আনা হবে।

গুয়াইদোর নেতৃত্বে ২০১৫ সালে পার্লামেন্টে নির্বাচনে বিজয়ী হন গুয়েভারা। ওই সময় পার্লামেন্টের নিয়ন্ত্রণ ছিল বিরোধীদের হাতে। এরপর ২০১৭ সালের এপ্রিল ও জুলাইয়ে মাদুরোকে ক্ষমতাচ্যুত করার বিক্ষোভে সহিংতার উস্কানির অভিযোগ আনা হয়েছিল গুয়েভারার বিরুদ্ধে।

ওই সহিংসতায় ১২৫ জনের প্রাণহানি ঘটে। প্রসিকিউটর কার্যালয় তার বিরুদ্ধে অভিযোগের অনুমোদন দিলে তিনি চিলি দূতাবাসে আশ্রয় নেন। এরপর মাদুরো তাকে ক্ষমা করে দিলে তিনি গত সেপ্টেম্বরে মুক্তি পান।

গত সপ্তাহে কারাকাসের আশেপাশে সহিংস সংঘর্ষের জন্য সরকার গুয়েভারা ও তার রাজনৈতিক মেন্টর লিউপলদো লোপেজকে দায়ী করছে। লোপেজ বর্তমানে স্পেনে নির্বাসিত। ওই সংঘর্ষে অন্তত ২৬ জনের প্রাণহানি ঘটে।

সাবেক ছাত্রনেতা ৩৫ বছর বয়সী গুয়েভারার কথা উল্লেখ না করে মাদুরো বলেছেন, তারা নিজেদের গণতান্ত্রিকতার আড়ালে অপরাধীদের সাথে সখ্য গড়ে তুলছেন।